পর্দা নেমেছে উন্নয়ন মেলার

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বণ্যাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে পর্দা নামল ৩ তিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলার। জাতিসংঘের সাধারন পরিষদের অধিবেশন চলাকালীন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক অর্জনের প্রেক্ষাপটে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নগরীর অশি^নী কুমার হলে জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান এর সভাপতিত্বে সমাপনি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে অতিথি ছিলেন বরিশাল ৫ আসনের সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি হুমায়ন কবির পিপিএমবার, পুলিশ সুপার এসএম আক্তারুজ্জামান, গভর্নেন্স ইনফরমেশন টু ইনোভেশন ইউনেটের সিনিয়র কনসালট্যান্ট মানিক মাহমুদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) কাজী হোসনে আরা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবুল কালাম ্আজাদ প্রমুখ। এ সময় বক্তারা বলেন, এদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বর্তমানে যেভাবে এই দেশে উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু হয়েছে, সেদিন আর বেশি দূরে নয় এই দেশকে ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত দেশ ঘোষনা করার। এছাড়াও প্রতিটি উপজেলার ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার থেকে ৬০টি ক্ষেত্রে সেবা প্রদান করা হচ্ছে। যার ফলে ওই সকল ইউনিয়নের তরুন প্রজন্ম একজন সফল উদ্যোক্তায় পরিণত হচ্ছে। তরুন সমাজের অগ্রনী ভূমিকা ও উদ্ভাবনী চিন্তা শক্তিকে যদি সঠিক পদ্ধতিতে কাজে লাগানো যায় তাহলে এই দেশ উন্নত বিশে^র কাছে মডেল দেশ হিসেবে পরিচিত লাভ করবে। এ সময় বক্তারা যার যার অবস্থানে থেকে দেশের উন্নয়নে কাজ করা আহ্বান জানান হয়। উন্নয়ন মেলার সমাপনি অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের কর্তৃক পরিচালিত ২টি ফেসবুক গ্রুপ সম্পর্কে সাধারন মানুষদের অবগত করা হয়। প্রথম গ্রুপটি হল ডিজিটাল বরিশাল ও ২য় টি বরিশাল সমস্যা ও সম্ভাবনা। এই দুটি গ্রুপে জেলার সাধারন মানুষ সম্ভাবনা সৌন্দর্যের বরিশাল ও সমস্যার বরিশালকে ফুটিয়ে তুলতে পারবে। এছাড়াও যেকোন সমস্যা সম্পর্কে বরিশাল সমস্যা ও সম্ভাবনা গ্রুপে পোস্ট করতে পারবে। এদিকে ডিজিটাল বরিশাল গ্রুপে বরিশালের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার লক্ষ্যে ছবি ও ভিডিও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। স্থিরচিত্র প্রতিযোগিতার ১ম স্থান শওকত ইমরান, ২য় স্থান তানজিল রাফি, ৩য় স্থান রিগান ইসলাম। ভিডিও প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান ওয়াহিদুর রহমান, ২য় স্থান সাকিব সাদ, ৩য় স্থান সৌরভ। এছাড়াও স্থির চিত্র ও ভিডিও প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন দিপু হাফিজুর রহমান, মোঃ সাইয়ান, মোঃ রাফি, ওমর সান্তনু, মোঃ শওকত, কাজী লুতফুল হাসান প্রমুখ। পরে বরিশালের সাংস্কৃতিক কর্মীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।