নৌবাহিনী ও পুলিশের অভিযানে তিন লক্ষাধিক মিটার জাল জব্দ ॥ ৫ জনের জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কীর্তনখোলা ও মেঘনা নদীতে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী এবং নৌ পুলিশের উদ্যোগে পৃথক পৃথক ভাবে অভিযান পরিচালিত হয়েছে। অভিযানকালে ৫৮ লাখ টাকা মূল্যের জাল, ৬ মন জাটকা এবং ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত পৃথক অভিযানে আটক ৫ জেলেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া জব্দকৃত জালগুলো পুড়িয়ে ধ্বংস এবং জাটকা বিভিন্ন এতিমখানা ও দুস্থদের মাঝে বিরতন করা হয়েছে।
কোষ্টগার্ড বরিশাল স্টেশনের মাষ্টার পেটি অফিসার জামাল উদ্দিন জানান, বিএনএস কর্নফুলী’র সাব লে. আশফাক বিন ইদ্রিস এর নেতৃত্বে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলার চরমোনাই, চন্দ্রমোহন, ভাষানচর, শ্রীপুর, বিশারী ঘাট, লাহার হাট, ধুলিয়া ও ভেদুরীয়া এলাকাধীন কীর্তনখোলা ও মেঘনা নদীতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় সেখান থেকে ২ লাখ ৮৬ হাজার মিটারা অবৈধ জাল জব্দ করেন। এর মধ্যে ২ লাখ ৮৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ১ হাজার মিটার বেহেন্দী জাল। যার আনুমানিক মূল্য ৫৮ লাখ টাকা। অভিযানে জব্দকৃত জাল বিকাল ৫টার দিকে কীর্তনখোলা নদীর তীরবর্তী রসুলপুর চরে মৎস্য কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে।
এদিকে নৌ পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোতালেব হোসেন জানান, হিজলা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এর নেতৃত্বে উপজেলার মেঘনা নদীতে অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় সেখান থেকে ৬ মন জাটকা এবং একটি ট্রলার সহ ৫ জনকে আটক করেন তারা। আটককৃতদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আবু জাফর এর নিয়ন্ত্রিত মোবাইল কোর্টে হাজির করা হয়। এসময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট প্রত্যেককে ২ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেন। পাশাপাশি জব্দকৃত ৬ মন জাটকা বিভিন্ন মাদ্রাসা এবং লিল্লাহ বোর্ডিং এ প্রদান করেন। এছাড়াও বরিশাল নৌ পুলিশ ফাঁড়ির অভিযান চালিয়ে ২৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছেন। জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে।