নারী পাচারকারী সন্দেহে গণধোলাই

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ শিশু পাঁচারকারী সন্দেহে আরো এক মহিলাকে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিমানবন্দর থানা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ অজ্ঞান অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেছে। গনধোলাই’র শিকার নারীর নাম মিনারা বেগম (৩৫)। তিনি বরিশাল সদর উপজেলার কর্ণকাঠি এলাকার বাসিন্দা সুলতান খানের স্ত্রী।
গনধোলাই’র শিকার মিনারা বেগম জানান, তার ডায়াবেটিস এর সমস্যা রয়েছে। এ কারনে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিদিন ভোরে হাটার পাশাপাশি ব্যায়াম করেন।
এর ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তিনি হাটতে বের হয়ে সারে ৭টার দিকে বিমানবন্দর থানা এলাকায় পৌছান। এসময় স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি তার পরিচয় যানতে চায়। এমনকি উল্টাপাল্ট প্রশ্নের ফাঁদে ফেলে তাকে বিব্রত করে। এক পযার্য় শিশু পাঁচারকারী আখ্যা দিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ করেন মিনারা বেগম। এতে এক সময় তিনি জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।
খবর পেয়ে বিমানবন্দর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ ঘটনাস্থলে পৌছে অজ্ঞান অবস্থায় ঐ মহিলাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। তার জ্ঞান ফিরলে স্বজনদের খবর দেয়া হয় বলে এসআই প্রদীপ জানিয়েছেন।