নানা আয়োজনে নগরীতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ র‌্যালী, আলোচনা সভা ও বিশেষ দোয়া-মোনাজাত ও কেক কাটার মধ্যদিয়ে নগরীতে পালিত হয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ৬৮ তম জন্ম বার্ষিকী। গতকাল রবিবার বরিশাল জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ এবং ছাত্রলীগের উদ্যোগে পৃথক পৃথক ভাবে এসব কর্মসূচী পালন করা হয়।
আওয়ামীলীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার জন্ম বার্ষিকী পালন উপলক্ষে বিকাল ৪টায় বিশেষ দোয়া এবং আলোচনা সভা করেছে বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগ। সদর রোডের শহীদ সোহেল চত্ত্বর সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি।
সভাপতির বক্তব্যে এ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী, বঙ্গবন্ধু’র সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা জন্ম না হলে দেশের মানুষ শান্তিতে থাকতে পারত না। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের অসংখ্য উন্নয়ন হয়েছে। তিনি আছেন বলেই দেশের মানুষ আজ শান্তিতে ঘুমাতে পারছে। সিন্ডিকেটের বেড়াজাল থেকে রক্ষা পেয়েছে। বিএনপি জামায়াত জোটের সমালচনা করে তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা যখনই দেশের জন্য শান্তি বয়ে আনতে ভালো কোন উদ্যোগ নিয়েছেন তখনই বিএনপি জামায়াত জোট তাকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছে। এমনকি তাকে হত্যার পরিকল্পনাও করা হয়েছে একাধিক বার। তার পরেও জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে প্রতিটি মূহুর্তে জীবনের ঝুকি নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে গিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্য আয়ের দেশে পরিনত করা হবে বলেন তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইতিহাসবিদ  সিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, সৈয়দ আনিচুর রহমান, এ্যাড. তুরুন চন্দ্র, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি শাহজাহান হাওলাদার, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি এ্যাড. সাইফুল আলম গিয়াস, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ জেলার সাধারন সম্পাদক এ্যাড. মজিবর রহমান, বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ জেলা সভাপতি এ্যাড. নাসির উদ্দিন খান বাবুল, এ্যাড. দেলোয়ার হোসেন মুন্সি, এ্যাড. রফিকুল ইসলাম খোকন, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহানা বেগম, মহিলা যুবলীগ নেত্রী শারমিন মৌসুমী কেকা, শ্রমিকলীগ নেতা পরিমল চন্দ্র দাস, ছাত্রলীগ জেলা সভাপতি সুমন সেরনিয়াবাত, সাধারন সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক। আলোচনা সভা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন এ্যাড. কাইয়ুম খান কায়সার।
এদিকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মহানগর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও বিশেষ দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. আফজালুল করিম এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সদর আসনের এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ হিরন। আ’লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার সাফল্য কামনা করে জেবুন্নেছা আফরোজ-এমপি বলেন, শেখ হাসিনা আছেন বলেই দেশের মানুষ তিন তিন বার মুক্তির সাধ পেয়েছে। বিশেষ করে তার নেতৃত্বে আজ এ দেশে আমরা নারীরা অধিকার ফিরে পেয়েছি। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে দেশের উন্নয়ন হয়। আর তাই শেখ হাসিনার জন্যই আমাদের দেশ বিশ্বের দরবারে মাথা উচু করে দাড়াতে পেরেছে। তাই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বরিশাল মহানগর আওয়ামীলীগকে সু-সংগঠিত করে রাজ পথের সকল আন্দোলন সংগ্রাম ও দেশের উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড. কেবিএস আহম্মেদ কবির, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি এ্যাড. আনিস উদ্দিন আহম্মেদ শহীদ ও মহানগর মহিলা লীগের সাধারন সম্পাদক ও কাউন্সিলর কহিনুর বেগম। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক এ্যাড. লস্কর নূরুল হক, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আজিজুর রহমান শাহীন, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে শেখ হাসিনার শতায়ু বছর কামনা এবং মঙ্গল কামনা করে বিশেষ দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া-মোনাজাত পরিচালনা করেন মহানগর আওয়ামী ওলামালীগের নেতৃবৃন্দ।
এদিকে বেলা ১২ টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে সদর রোডের শহীদ সোহেল চত্ত্বর সংলগ্ন আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে কেক কেটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্ম দিন পালন করেন জেলা ছাত্রলীগ। জন্ম দিনের কেক কাটার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বরিশাল-২ আসনের সাংসদ এ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন সেরনিয়াবাত, সাধারন সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক প্রমূখ।
এর পূর্বে বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ মিছিল বের করে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ। নগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন এর নেতৃত্বে আনন্দ মিছিলটি নগরীর সদর রোডের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ সময় নগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক অসীম দেওয়ান, সাংগঠনিক সম্পাদক তৌসিক আহম্মেদ রাহাত, ছাত্রলীগ নেতা মিলন, প্রদিপ, তানিম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।