নথুল্লাবাদ ও রূপাতলীতে দুটি পুলিশ বক্সের উদ্বোধন পুলিশ জনগণের সেবক পুলিশ কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার লুৎফর রহমান মন্ডল বলেছেন, পুলিশ জনগণের সেবক। আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ছাড়াও জনগণের জানমালের নিরাপত্তার দায়িত্ব পুলিশের। পুলিশের কাছ থেকে জনগণ সেবা আদায় করে নিবে। এক্ষেত্রে গাফেলতি সহ্য করা হবে না। গতকাল তিনি নথুল্লাবাদ বাসস্ট্যান্ডে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা জালাল আহমেদ শরীফ পুলিশ বক্স ও রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা কনস্টেবল মুনছুর আলী হাওলাদার পুলিশ বক্সের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। সকাল ১০ টায় নথুল্লাবাদ বাস স্ট্যান্ড ও সাড়ে ১০টায় রূপাতলী বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন দুটি পুলিশ বক্সের উদ্বোধন করেন পুলিশ কমিশনার। পুলিশ কমিশনার বলেন, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা দুই পুলিশ সদস্যের নামে এই বক্স করতে পেরে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। যাদের জন্য আমরা একটি মানচিত্র পেয়েছি, পেয়েছি লাল সবুজ পতাকা তাদের জন্য কিছু করতে পারলে আমার ব্যক্তিগতভাবে ভালো লাগে। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে নথুল্লাবাদে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা জালাল আহমেদ শরীফ পুলিশ বক্স ও রূপাতলীতে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা কনস্টেবল মুনছুর আলী হাওলাদার পুলিশ বক্সের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ডিসি (ট্রাফিক) আবু রায়হান মোঃ সালেহ। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ সায়েদুর রহমান, ডিসি সাউথ গোলাম রউফ খান, ডিসি সদর হাবিবুর রহমান খান, এসি (কোতয়ালী) আজাদ রহমান, এসি (ডিবি) আবু সাইদ, এসি (সিটিএসবি) রুনা লায়লা, এসি (বিমানবন্দর) আব্দুর রব। এছাড়াও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জালাল আহমেদের সহধর্মীনী সাফিয়া আক্তার ও ছেলে আবুল কালাম আজাদ ও মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আলী হাওলাদারের ভাই মোঃ এনায়েত হোসেন উপস্থিত ছিলেন। নথুল্লাবাদে পুলিশ বক্স উদ্বোধনকালে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কেবিএস মহিউদ্দিন মানিক (বীর প্রতীক), নথুল্লাবাদ বাস মালিক সমিতির সভাপতি আফতাব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউনুস, দৈনিক পরিবর্তন পত্রিকার সম্পাদক কাজী মিরাজ, নথুল্লাবাদ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা প্রমুখ। এছাড়া রূপাতলীতে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা কনস্টেবল মুনছুর আলী হাওলাদার পুলিশ বক্সের উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন রূপাতলী বাস মালিক সমিতির সভাপতি আজিজুর রহমান শাহিন, সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন শিপন, শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহমেদ প্রমুখ। উল্লেখ্য আজকের দুটি নিয়ে মোট তিনটি পুলিশ বক্স স্থাপন করা হলো। পর্যায়ক্রমে আরও ১৩টি পুলিশ বক্স নগরীতে স্থাপণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ডিসি ট্রাফিক আবু রায়হান মোঃ সালেহ।