নতুন বাজারে ছাত্র ও যুবলীগের কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নগরীর ১৯ নং ওয়ার্ড যুব ও ছাত্রলীগের মধ্যে হামলা, সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নতুন বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে ছাত্র ও যুবলীগের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন সময় পূনরায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে স্থানীয়রা।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নতুন বাজার আকাশ সুইটস নামে একটি দোকানে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৯ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুর রহমান আরিফ ওরফে চামে আরিফ এবং একই ওয়ার্ডের যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক গাজী রেজাউল হোসেন বাবুর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায় তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফ ও যুবলীগ যুগ্ম আহ্বায়ক বাবু তাদের সহযোগিদের নিয়ে নতুন বাজারে অবস্থান নেয়। এসময় তাদের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া ধাওয়ি হয়। তখন স্থানীয়রা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পাশাপাশি স্থানীয় কাউন্সিলর বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দেন। কিন্তু কাউন্সিলর এবং স্থানীয়দের কথা উপেক্ষা করে আরিফ তার বাহিনী নিয়ে যুবলীগ নেতা গাজী রেজাউল হোসেন বাবু’র উপর হামলা চালায়। এসময় তাকে কুপিয়ে জখমের চেষ্টা করে। কিন্তু স্থানীয়রা ধাওয়া দিলে পালিয়ে যায় ছাত্রলীগ ক্যাডার আরিফ হোসেন ওরফে চামে আরিফ।
এ ঘটনার পর যুবলীগের বাবু গ্রুপ নতুন বারে আরিফের বাসায় সামনে অবস্থান নেয় এবং এক গ্রুপ বাসার ভেতরে প্রবেশ করে পরিবারের সদস্যদের হুমকি দেয়। ফলে বিষয়টি নিয়ে পুনরায় দুই গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয়রা।
জানতে চাইলে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাখাওয়াত হোসেন বলেন, নতুন বাজারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র ছাত্র ও যুবলীগের মধ্যে একটু ঝামেলা হয়েছে। তবে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে। পরবর্তী অপ্রীতিকর