নগর ভবনে মজিবর রহমান সরোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ দীর্ঘ দিন পরে নগর ভবনে গেলেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচিত মেয়র ও বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার। উত্তর বঙ্গে বন্যার্ত ও মায়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গাদের জন্য সহযোগিতা চাইতে গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি নগর ভবনে যান। বিষয়টি নিয়ে তিনি সিটি মেয়র ও বিএনপিপন্থি কাউন্সিলরদের সাথে মতবিনিময় করেন। বিএনপি’র পক্ষ থেকে এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার এর আহ্বানে সাড়া দিয়ে মুসলিম রোহিঙ্গা এবং বন্যা দুর্গতদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন মেয়র আহসান হাবিব কামাল সহ বিএনপি পন্থি ২৫ কাউন্সিলর। তারা তাদের প্রাপ্ত ভাতার কিছু অংশ রোহিঙ্গা ও বন্যার্তদের মাঝে বিতরন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ ছাড়াও মেয়র এবং বিএনপি পন্থি কাউন্সিলরদের সাথে নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন এ্যাড.মজিবর রহমান সরোয়ার।
জানাগেছে, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন ঘোষনার পরে প্রথম নির্বাচিত মেয়র ছিলেন সদর আসনের সাবেক এমপি আলহাজ্ব এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। তার পরবর্তীতে নির্বাচিত মেয়র ছিলেন মরহুম শওকত হোসেন হিরন। তৃতীয় দফায় মেয়র হয়েছেন বিএনপি নেতা মো. আহসান হাবিব কামাল।
এদিকে মেয়র পদে পালাবদলের পরে সিটি কর্পোরেশনে তেমন যাওয়া আসা ছিলো না বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড সরোয়ারের। আহসান হাবিব কামাল মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পরে তার দায়িত্ব গ্রহনের দিন নগর ভবনে গিয়েছিলেন তিনি। এর পরে গত প্রায় চার বছরে সিটি কর্পোরেশনে যাননি তিনি। গতকাল হঠাৎ করে নেতা-কর্মীদের নিয়ে নগর ভবনে গিয়ে সকলকে চমকে দেন। তার আগমনে বিএনপি পন্থি কাউন্সিলর এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।
বিএনপি’র মহানগর শাখার সহ-সভাপতি ও প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব কেএম শহীদুল্লাহ বলেন, বিএনপি’র মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার তার কোন ব্যক্তিগত কাজ নিয়ে নগর ভবনে আসেননি। এসেছিলেন দলের হয়ে মায়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গা এবং উত্তর বঙ্গে বন্যা দুর্গতদের সহযোগিতার জন্য। বিএনপি’র ত্রান তহবিলে অর্থ ও ত্রানের যোগান দিতেই তার নগর ভবনে আসা।
তিনি বলেন, যুগ্ম মহাসচিব দুর্গতদের সহযোগিতার জন্য বিএনপি পন্থি মেয়র এবং কাউন্সিলরদের সাথে মতবিনিময় করেন। বিএনপির পক্ষ থেকে মজিবর রহমান সরোয়ার’র আহ্বানে সাড়া দিয়ে দুর্গতদের সহযোগিতার জন্য নিজেদের সম্মানি ভাতার অংশ দেয়ার আশ্বাস দেন মেয়র এবং বিএনপি পন্থি কাউন্সিলররা। এর মধ্যে বিসিসি’র মেয়র আহসান হাবিব কামাল ২০ হাজার এবং বিএনপি পন্থি ২৫ জন কাউন্সিলর ১০ হাজার টাকা করে মোট ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা দেয়ার নিশ্চয়তা দেয়া হয় যুগ্ম মহাসবিচ মজিবর রহমান সরোয়ারকে। এর বাইরেও মেয়র এর কক্ষে কাউন্সিলরদের সাথে আরো নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন মজিবর রহমান সরোয়ার।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- মহানগর বিএনপি’র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব কেএম শহীদুল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক কাউন্সিলর জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া, প্যানেল মেয়র শরীফ তাসলিমা কামাল পলি, মীর জাহিদুল কবির জাহিদ, নগর বিএনপি’র সহ-সাধারন সম্পাদক আনোয়ারুল হক তারিন, মহানগর যুবদলের সাধারন সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মাসুদ হাসান মামুন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মাহাবুবুর রহমান পিন্টু প্রমূখ।