নগর জামায়াতের আমীর সহ ৫৫ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা ॥ আটক-১

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে বরিশাল মহানগর জামায়াতে ইসলামীর আমীর ও সেক্রেটারী সহ ৫৫ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৫ জনকে নামধারী এবং ৩০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মেট্রোপলিটন কোতয়ালী মডেল থানায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামীম হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।
এর পূর্বে গত ২৪ আগস্ট রাতে নগরীর ২৪নং ওয়ার্ড এলাকাধীন শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর নিচে নদীর পাড় থেকে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড জামায়াত ইসলামের সেক্রেটারী মো. বারেক হাওলাদার ওরফে বারেক এমপিকে আটক করা হয়।
এই মামলায় অন্যান্য নামধারী আসামিরা হলো- বরিশাল মহানগর জামায়াতে ইসলামের আমীর অ্যাড. মুয়ায্যম হোসাইন হেলাল, নায়েবে আমীর বজলুর রহমান বাচ্চু, সেক্রেটরী জহির উদ্দিন বাবর, সহকারী সেক্রেটারী মো. মতিউর রহমান, সদস্য মো. শামীম কবির, মো.শাহ আলম, রাসেল লস্কর, মো. শফিউল্লাহ তালুকদার, আব্দুস ছত্তার, মাওলানা ইসমাইল হোসেন নেছারী, সাইফুল ইসলাম, মাহাফুজুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার, আবুল কাশেম, জয়নাল আবেদিন, আব্দুর রউফ, মোস্তাফিজুর রহমান, আবুল কালাম, মো. শাহজাহান সিরাজ, মিজানুর রহমান, মো. কাঞ্চন ও ফিরোজ আহম্মেদ।
মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে, গত ২৪ আগস্ট রাতে নগরীর দপদপিয়া এলাকায় শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর নিচে কীর্তনখোলা নদী সংলগ্নে নাশকতার পরিকল্পনা করার জন্য গোপন বৈঠক করে আসামিরা। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পেরে কোতয়ালী মডেল থানার টহল পুলিশ ঐ স্থানে অভিযান চালায়। এসময় ২৪ নং ওয়ার্ড সেক্রেটারী বারেক এমপিকে আটক করা হলেও বাকিরা পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বারেকের দেয়া তথ্য মতে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগ এনে পুলিশ বাদী হয়ে উল্লেখিতদের আসামি করে মামলাটি দায়ের করেছে।
এদিকে আটক জামায়াত নেতা আব্দুল বারেক হাওলাদারকে শুক্রবার ঐ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক অমিত কুমার দে তাকে জেলে প্রেরনের নির্দেশ দেন।