নগরী থেকে জাল টাকাসহ ফাঁসির দন্ডিত আসামী গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর কাউনিয়া সাবান ফ্যাক্টরী এলাকা থেকে জাল টাকাসহ ফাঁসির দন্ডিত আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে কাউনিয়া থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আসামী হলো নাজমুল হোসেন ওরফে আজমুল (২৮)। কাঠালিয়া উপজেলার উত্তর বাঁশবুনিয়া এলাকার জিয়াউল হকের ছেলে। তার কাছ থেকে ৪৫ হাজার জাল টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আজমুল বড় ভাইকে হত্যা মামলায় ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পালাতক আসামী। কাউনিয়া থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম-পিপিএম জানান, ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামী নাজমুলের বড় ভাই আল-আমিন। সে ২০১০ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর নিখোঁজ হয়। এর একদিন পরে অর্থাৎ ২৫ সেপ্টেম্বর কাঠালিয়া উপজেলার দক্ষিণ চেচরী গ্রামের মাঝি বাড়ির সংলগ্ন রাস্তার পাশ থেকে আল-আমিনের গলাকাটা মৃত দেহ উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় নিহতের বাবা জিয়াউল হক একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ ২০১১ সালের ৩১ আগস্ট আদালতে হত্যা মামলার চার্জশিট দাখিল করেন। ওই মামলায় ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ ঝালকাঠী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অভিযুক্ত তিন আসামীর মধ্যে নিহত আল আমিনের ভাই নাজমুল হোসেন আজমুলকে ফাঁসিয়ে ঝুলিয়ে মৃত্যু দন্ডাদেশ প্রদান করেন। একই সাথে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করে। অপর দুই আসামীর মধ্যে নাজমুলের বন্ধু বেল্লাল হোনেকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম করাদন্ড প্রদান করেন। এছাড়াও এমাদুল হক নামের অপর আসামীকে খালাস প্রদান করা হয়।
কারাদন্ডাদেশ দেয়ার পূর্ব থেকে পালিয়ে ছিল নাজমুল হোসেন আজমুল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর কাউনিয়া সাবান ফ্যাক্টরি এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ৫শত টাকার ৬টি, ১ হাজার টাকার ৪২টি জাল নোট ও জাল টাকা থেকে আসল করা ২১ হাজার ৪ শত টাকা, বাংলাদেশ ব্যাংকের সীল, সীলপ্যাড, কালার প্যাড ও খাতা উদ্ধার করা হয়েছে।