নগরীসহ জেলায় ৩২ পশুর হাট ॥ অনুমতির অপেক্ষায় ৩টি

রুবেল খান ॥ নগরীসহ জেলায় কোরবানীর পশু কেনা-বেচার জন্য এবার স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ৩২ হাট চুড়ান্ত হয়েছে। আরো তিন স্থানে হাট’র জন্য দেয়া আবেদন অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছে। জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ এসব হাট চুড়ান্ত করেছে।
এদিকে প্রত্যেকটি হাটের ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের নিরাপত্তায় জেলা ও মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে স্থাপন করা হয়েছে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প। ক্রেতা-বিক্রেতাদের সহযোগিতার জন্য হাট গুলোতে স্থাপন করা হয়েছে বিকাশ ও ব্যাংকিং পয়েন্ট। তাছাড়া প্রতারকদের হাত থেকে ক্রেতা-বিক্রেতাদের রক্ষায় শতর্কতামুলক মাইকিং এবং পুলিশ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জাল টাকা সনাক্ত করন যন্ত্র স্থাপন করা হবে। তাছাড়া পশুর হাট পর্যবেক্ষনের লক্ষে ৬৭টি ভেটেনারী টিম গঠন করেছে জেলা প্রানী সম্পদ অধিদপ্তর।
বরিশাল সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, জেলার ৬ উপজেলায় এবং বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মোট ১২টি স্থায়ী পশুর হাট রয়েছে। এর বাইরে প্রতি বছর কোরবানী উপলক্ষে অস্থায়ী ভিত্তিতে তিন দিনের জন্য পশুর হাটের ইজারা দেয়া হয়। নগরীতে এসব অস্থায়ী হাটের অনুমতি দিয়েছে বিসিসি ও জেলায় দেন জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ। সে অনুযায়ী এবার কোরবানী উপলক্ষে এ পর্যন্ত ২০টি অস্থায়ী পশুর হাটের অনুমতি দেয়া হয়েছে।
স্থায়ী ভিত্তিতে ইজারা প্রাপ্ত উপজেলা পর্যায়ে পশুর হাটগুলোর মধ্যে গৌরনদীতে ১টি, মেহেন্দিগঞ্জে ২টি, হিজলায় ৩টি, বাবুগঞ্জে ২টি, বানারীপাড়ায় ১টি ও বাটকেরগঞ্জে ১টি। এরবাইরে সিটি কর্পোরেশন কাউনিয়া এলাকার বাঘিয়া এবং হাটখোলার কশাইখানায় একটি স্থায়ী পশুর হাট রয়েছে।
এছাড়া সিটি কর্পোরেশন এলাকায় এবারে অস্থায়ী ভিত্তিতে যে পাঁচটি হাটের অনুমোদন দেয়া হয়েছে তার মধ্যে ২৫ নং ওয়ার্ডেই দুটি। এর মধ্যে একটি বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কের সোনারগাও টেক্সটাইল মিলের বিপরিতে রূপাতলী মুক্তিযোদ্ধা সড়ক সংলগ্ন বালুর মাঠে এবং অপরটি বরিশাল-ঝালকাঠি সড়কের পাশে রূপাতলী বাস টার্মিনাল সংলগ্ন উকিলবাড়ি সড়কের বিপরিতে। অপর তিনটি হাটের মধ্যে কাউনিয়া টেক্সটাইল সংলগ্ন বটতলা মোড়ে একটি, কালিজিরা বাজারে একটি এবং অপরটি বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের সিন্ডবি রোডে উপজেলা পরিষদের বিপরীতে এ্যাড. এনায়েত উল্লাহ হাউজিংএ।
অস্থায়ী ভিত্তিতে সদর সহ ৭টি উপজেলায় ২০ পশুর হাটের ইজারা প্রদান করা হয়েছে। যার মধ্যে বরিশাল সদর উপজেলাতেই ৭টি। গুলোর হলো- কাগাশুরায় ১টি, তালতলীতে ১টি, আমিরগঞ্জে ১টি, কাশিপুরের শার্ষীতে ১টি, জাগুয়া এলাকায় ১টি, রায়াপাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের বসুর হাটে ১টি এবং ফকির হাটে ১টি।
এর বাইরে উজিরপুর উপজেলার ধামুরা ও বরাকোটা এলাকায় ২টি, বানারীপাড়া পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডে একটি, বাবুগঞ্জ উপজেলার জাহাপুর এবং রহমতপুর এলাকায় ২টি, গৌরনদী উপজেলার সাহেবের চর এলাকার লঞ্চঘাট বাজারে ১টি, বাকেরগঞ্জ উপজেলার হলতা এলাকায় ১টি, আগৈলঝাড়ার গৈলা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মাঠে ১টি অস্থায়ী কোরবানীর পশুর হাটের ইজারা অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
বরিশাল জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় শাখার উপ-পরিচালক আবুল কালাম আজাদ জানান, হাটের জন্য আবেদনকৃতদের যাচাই বাছাই শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে অস্থায়ী হাটের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার পর্যন্ত অস্থায়ী ২০ পশুর হাটের অনুমোদন প্রদান ছাড়াও আরো ৩টি অস্থায়ী হাটের জন্য আবেদন তারা পেয়েছেন। তিনটি আবেদনই বাবুগঞ্জ উপজেলার মধ্যে। এর মধ্যে একটি উপজেলার মোহনগঞ্জে, একটি রাহুতকাঠী এবং অপরটি বাহের চরে। আজ সোমবার এ তিনটি হাটের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় শাখার ওই কর্মকর্তা।