নগরীতে শারদ মিলন মেলায় এমপি ইউনুস অশুভ শক্তি মাথা চারা দিতে চায়

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশ। সাম্প্রদায়িক চেতনার আলোকে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে। হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান মিলেমিশে বসবাস করে আসছে। এখনও মাঝে মাঝে আবার অসাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি মাথা চারা দিয়ে উঠতে চায়। মা দূর্গা যেমন শান্তি প্রতিষ্ঠায় অসূর বধ  করেছেন, তেমনি এদেশে কোন অসূরকে আর মাথা চারা দিয়ে উঠতে দেয়া যাবে না। গতকাল নগরীতে বরিশাল জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের শারদ উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ এ্যাডঃ তালুকদার মোঃ ইউনুস এ কথা বলেন। এর পূর্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল আলম। সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি বলেন,  দেবী দূর্গার পূজার পরও অসংখ্য অসূর সমাজে ভর করে আছে। সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের প্রতিহত করতে হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি নারায়ন চন্দ্র দে নারু, ১৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গাজী নঈমুল হোসেন লিটু, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এ্যাডঃ দুলাল চন্দ্র শীল, মহাশ্মশান রক্ষা সমিতির সভাপতি মানিক মুখার্জী কুডু, মৃণাল কান্তি সাহা। এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক সুরজিৎ দত্ত লিটু, এ্যাডঃ স্বপন কুমার দত্ত, এ্যাডঃ দীলিপ কুমার ঘোষ, কালিয় দমন গুহ, ডাঃ ভাস্কর সাহা, এ্যাডঃ হিরন কুমার দাস মিঠু প্রমুখ। বক্তারা শারদীয় মিলন উৎসবের মাধ্যমে সকলের মাঝে সহাবস্থান আরো জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। সভাপতিত্ব করেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাখাল চন্দ্র দে। অধ্যাপক সুজয় সেন’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক গোপাল সরকার, অমূল্য রতন বর্ধন, অমর কুমার ফুটি, মুকুল চন্দ্র মুখার্জী, দীলিপ চক্রবর্তী, গোপাল সাহা, শেখর দাস খোকন, প্রিয়লাল মন্ডল, অনির্বান বিশ্বাস ও এ্যাডঃ বিষুপদ মুখার্জী সহ জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। অন্যদিকে অনুষ্ঠানে সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন বিভিন্ন শিল্পীরা। প্রতিমায় ৫টি, সাজসজ্জায় ৫টি সহ  মোট ১৫টি পূজা মন্ডপকে পুরস্কৃত করা হয়। এতে বিচারক ছিলেন অমৃত লাল দে কলেজের অধ্যক্ষ তপঙ্কর চক্রবর্তী, চারুকলার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এনায়েত হোসেন, সাংবাদিক সাইয়েদ আহম্মেদ মান্না ও স্থপতি মিলন মন্ডল।