নগরীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শ্রমিক নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নগরীর ফলপট্টি মোড়ে নির্মানাধীন ভবনের কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে এক নির্মান শ্রমিক নিহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নির্মান শ্রমিকের নাম শামীম (২৬)। সে নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ভাড়াটিয়া এবং ভোলা সদর এলাকার নয়ন হোসেন এর ছেলে।
এদিকে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের নির্মম মৃত্যু হলেও তার ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়নি। উল্টো নিহতের পরিবারকে ভুল বুঝিয়ে বাড়ির মালিকপক্ষ তড়িঘরি করে লাশ হাসপাতাল থেকে সরিয়ে ফেলার চেষ্টার অভিযোগ করেছেন ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম।
তিনি জানান, পোর্ট রোডের ফলপট্টির মোড়ে মাছ ব্যবসায়ী মোখলেছ পালোয়ানের নির্মানাধীন বাড়ির ভবনের ছাদে কাজ করতে ছিলেন শ্রমিকরা। এসময় রডের টুকরা বিদ্যুৎ এর সাথে লাগলে রাজমিস্ত্রির সহকারী নির্মান শ্রমিক শামীম বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে  মৃত বলে ঘোষণা করেন। নিহতের ঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এদিকে ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জানান, চরমোনাই’র বুখাই নগরের বাসিন্দা মাছ ব্যবসায়ী মোখলেছুর রহমান অপরিকল্পিত ভাবে নির্মান কাজ চালিয়ে আসছে। এজন্যই দুর্ঘটনায় শামীম নিহত হয়েছে। কিন্তু বাড়ির মালিক মোখলেছুর রহমান শামীমের ক্ষতিপূরণ না দিয়ে উল্টো বিষয়টি চাপিয়ে যাওয়ার ষড়যন্ত্র করে। এমনকি লাশের ময়না তদন্তও না করার জন্য শামীমের পরিবারের কাছ থেকে তড়িঘড়ি করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছে। ফলে বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এই শ্রমিক নেতা। পাশাপাশি বিষয়টি অধিকতর তদন্তের দাবী জানান তিনি এবং সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।