নগরীতে ছাত্রদলের চোরগোপ্তা বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ চলমান হরতাল ও অবরোধের সমর্থনে নগরীতে বিক্ষোভ করেছে ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা। এসময় তারা সড়কে পেট্রোল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করে চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির পাশাপাশি সরকার বিরোধী শ্লোগান দেয়। তবে ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।
এছাড়া গতকাল নগরীতে হরতালের সমর্থনে তেমন কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। র‌্যাব, পুলিশের কড়া নিরাপত্তার মধ্যে হরতাল-অবরোধকারীরা মাঠে নামতে পারেনি হরতাল ও অবরোধকারীরা। তবে নাশকতার আশংকায় বন্ধ ছিলো দুরপাল্লার যানবাহন চলাচল। আভ্যন্তরিণ রুটে স্বল্প পরিসরে যাত্রীবাহী বাস চলাচল করলেও যাত্রী সংখ্যা ছিলো খুবই কম। এছাড়া নৌযান চলাচল স্বাভাবিক দেখা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নির্বাচনের দাবীতে দেশ ব্যাপী বিএনপি-জামায়াত জোটের লাগাতর অবরোধের পাশাপাশি চলছে খন্ডকালীন হরতাল। দেশ ব্যাপী হরতাল পালিত হলেও নিরুত্তাপ ভাবে পালিত হয়েছে বরিশালের হরতাল কর্মসূচি। জেলায় কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
তবে সোমবার সকাল ৮টার দিকে নগরীতে হরতাল এবং অবরোধের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল ও সড়কে পেট্রোল ঢেলে অবরোধ করেছে বরিশাল মহানগর ছাত্রদলের একাংশ। নগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান মঞ্জুর নেতৃত্বে হরতাল-অবরোধের সমর্থনে কলেজ এভিনিউ সড়কে মিছিল বের করা হয়। মিছিলে সরকার বিরোধী শ্লেগান দিয়ে কলেজ এভিনিও সড়কের মুখে অবস্থান নেয়। সেখানে সড়কে পেট্রোল ঢেলে বিক্ষোভ করে। এসময় আশ পাশের মানুষের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি যানবাহন ও সাধারণ মানুষের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তবে তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই সটকে পড়ে হরতাল ও অবরোধকারীরা। ফলে কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।
তবে সকালে এঘটনার পরে বেলা বাড়ার পরে নগরীর কোথাও দেখা যায়নি হরতাল-অবরোধ সমর্থকদের। প্রশাসনের কড়া নিরাপত্তা জোরদারের ফলে মানুষের দৈনন্দিন জীবন যাত্রা স্বাভাবিক দেখা গেছে।