নকল দিতে গিয়ে অবরুদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স পরীক্ষায় নকল সরবরাহের অপরাধে অবৈধ কর্মপরিষদের জিএস নাহিদ সেরনিয়াবাদকে অবরুদ্ধ করে রাখে শিক্ষকরা। গতকাল শনিবার বিকাল ৩টার দিকে বরিশাল ব্রজমোহন বিশ্ব বিদ্যালয় (বিএম) কলেজের বানিজ্য বিভাগে এই ঘটনা ঘটে। একই সাথে নাহিদ সেরনিয়াবাতকে নকল নিয়ে হলে প্রবেশের অপরাধে দুই পিয়নকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এরা হলেন- ইতিহাস বিভাগের পিয়ন উত্তম ও হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের পিয়ন আবু তাহের।
প্রত্যক্ষদর্শী বিএম কলেজের বানিজ্য ভবন হলে পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী একাধিক ছাত্র জানায়, গতকাল শনিবার থেকে জাতায় বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধিনে ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রথম দিনে ইংরেজি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে পরীক্ষা চলাকালে বিএম কলেজের বানিজ্য ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্রে বিএম কলেজ অবৈধ কর্মপরিষদের সাধারন সম্পাদক (জিএস) নাহিদ সেরনিয়াবাত প্রশ্নের উত্তর পত্র নিয়ে হলে প্রবেশ করে। লুকিয়ে হলে প্রবেশ করে পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী তার সহযোগীদের উত্তরপত্র (নকল) সরবরাহ করে। নকল সরবরাহ করে বের হবার সময় হলের দায়িত্বরত শিক্ষকরা তাকে বাধা দেয় এবং অনুমতি ছাড়া হলে প্রবেশের অপরাধে হলের গেটে তালা দিয়ে নাহিদ সেরনিয়াবাতকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এসময় নাহিদ ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে শিক্ষকদের লাঞ্ছিত করে বলেও অভিযোগ রয়েছে।
খবর পেয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বে থাকা কাজী নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে এসে নাসিদ সেরনিয়াবাতকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। একই সাথে তাকে অনুমতি ছাড়া নকল নিয়ে হলের ভেতরে প্রবেশে সহযোগিতা করায় ইতিহাস বিভাগের পিয়ন উত্তম ও হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের পিয়নকে চাকুরী থেকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার করেন। বিএম কলেজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বে থাকা কাজী নজরুল ইসলাম উল্লেখিত তথ্যের সত্যতা স্বীকার করেছেন।