দেশ এখন চরম সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে: এরশাদ

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘ দেশ এখন চরম সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে। দেশের মানুষ এখন বিরক্তিকর ভাবে জীবন যাপন করছেন। এ দেশের মানুষ বর্তমান সরকারের শাসনে ভালো নেই। বিএনপির পর আওয়ামী লীগের চলমান শাসনামলে স্বস্তিতে নেই সাধারণ মানুষ। তাই এদের থেকে মুক্তি চায় জনতা।’
বরিশাল নগর জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্যে সোমবার সকালে এ কথা বলেন তিনি। নগরীর অশ্বিণী কুমার হল চত্বরে বেলা সাড়ে ১১টায় সম্মেলন উদ্বোধন করেন এরশাদ।
এসময় তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আমলেএখন নারীর কোনও নিরাপত্তা নেই। বর্তমানে পত্রিকা আর টেলিভিশন খুললেই দেখা যায় নারী নির্যাতন আর ধর্ষণের খবর। অথচ জাতীয় পার্টির সরকারের সময় এমন অবস্থা ছিল না। তাই জনতার সমর্থন নিয়ে জাতীয় পার্টি ফের ক্ষমতায় আসবে।’ এ সময় তিনি আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।
সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। বিশেষ অতিথি ছিলেন পানিসম্পদ মন্ত্রী ও জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা ও জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু।
এতে সভাপতিত্ব করেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক একেএম মরতুজা আবেদিন।সঅন্যদিকে সম্মেলন নিয়ে জাতীয় পার্টির দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়লে কিছুটা উত্তেজনা দেখা দেয়। সকাল ১০টায় এরশাদের অবস্থানস্থল বরিশাল সার্কিট হাউসের সামনে জেলা জাপার সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মহসিন উল ইসলামের সমর্থকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে চাইলে পুলিশের বাধায় তা ব্যর্থ হয়।
এ ব্যাপারে কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাখায়াত হোসেন জানান, নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।
এছাড়া সম্মেলনে জাতীয় পার্টির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের আশঙ্কা থাকলেও পুলিশি তৎপরতায় কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরাও সম্মেলনের স্থানে অবস্থান করেছিল। এছাড়া যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে জেল খানার মোড় , বিবির পুকুর পারের মুখে দুইটি জল কামান রাখা হয়।