দীর্ঘদিন পর নগরীতে ফিরছেন বিএনপি নেতা সরোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ আত্মগোপনে থাকার প্রায় চার মাস পর আজ প্রিয় শহর বরিশালে আসছেন বরিশাল তথা দক্ষিণাঞ্চল বিএনপি’র রাজনৈতিক অভিভাবক খ্যাত সাবেক এমপি এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। গতকাল সোমবার তিনি লঞ্চ যোগে ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। বিএনপি তথা ২০ দলের ডাকা সরকার বিরোধী আন্দোলন শুরুর পর থেকে তিনি রাজনৈতিক কৌশলগত ভাবে আত্মগোপনে ছিলেন।
এদিকে প্রায় চার মাস পর মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার’র বরিশাল আগমনের সংবাদে নেতা-কর্মীদের মাঝে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলতে দেখা গেছে। ইতোমধ্যে তাকে বরন করতে নানা ভাবে আয়োজনও করেছেন মহানগর ও জেলা বিএনপি সহ অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
সূত্রমতে, গত ৬ জানুয়ারী থেকে বিএনপি’র ডাকা অনির্দিষ্ট কালের জন্য লাগাতার অবরোধ এবং হরতাল কার্মসূচী শুরু হয়। আন্দোলন চলাকালে নগরীর বিভিন্ন স্থানে নাশকতা, যানবাহনে ভাংচুর অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটায় দুর্বৃত্তরা। এতে চাপের মধ্যে পড়তে হয় বিএনপি-জামায়ত সহ ২০ দলের নেতা-কর্মীদের। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে পালিয়ে বেড়ান বরিশাল জেলা ও মহানগর বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা।
এদিকে আন্দোলন শুরুর পূর্বে সর্ব প্রথম ৫ই জানুয়ারী একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। এসময় পুলিশের বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়। এর পরে লাগাতার অবরোধ চলাকালে নগরীর কাউনিয়া, ভাটিখানা এবং স্ব-রোডে তিনটি বিক্ষোভ মিছিল করলেও পুলিশের বাধায় পালিয়ে যেতে হয়। এর পরে হঠাৎ করেই লাপাত্তা হয়ে যান এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। তার মধ্যে তার বিরুদ্ধে দুটি নাশকাতা মূলক মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর থেকে গ্রেফতার আতংকে তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরটিও বন্ধ রাখেন তিনি।
অপরদিকে দীর্ঘ দিন পর উচ্চ আদালত থেকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের হওয়া মামলায় আগাম জামিন নেন এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। কিন্তু জামিনের আদেশ বরিশালে পৌছাতে বিলম্ব হওয়ায় তিনি আসতে পারেননি। অবশেষে গতকাল তিনি লঞ্চ যোগে ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন।
বরিশালে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও বরিশাল মহানগরের সভাপতি এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, রাজনীতি এবং আন্দোলনের কৌশলগত কারনে দীর্ঘ দিন তিনি বরিশালের বাইরে ছিলেন। যে কারনে সকলের সাথে ঠিক ভাবে যোগাযোগ রক্ষা করা সম্ভব হয়নি।
তিনি বলেন, আন্দোলন চালাকালে আমার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যে জন্যও নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে একটু আত্মগোপনে ছিলাম। তার পরেও আইনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দায়ের হওয়া মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে বরিশালে আসছি। আগামী ৩০ মে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান’র শাহাদাৎ বার্ষিকীর কর্মসূচিতে অংশগ্রহন করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।