দপদপিয়া সেতুর টোল আদায়ের দায়িত্ব হস্তান্তর নিয়ে দ্বন্দ্ব

শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর টোল উত্তোলনের মেয়াদ শেষে বুঝ নিতে যাওয়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বাধা দিয়েছে ইজারাদারদের লোকজন। গতকাল শুক্রবার রাত ১২টা ১ মিনিটে ওই ঘটনার সময় সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মচারীদের মারধর করা হয়েছে। পরে র‌্যাব, পুলিশ নতুন পুরাতন ইজরাদারদের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি শান্ত হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সেতুর টোল আদায়ের পূর্বের ইজারাদারের মেয়াদ রাত ১২টা ১ মিনিটে শেষ হয়। কিন্তু ইজারাদার মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি নিজামউদ্দিন আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ এনে উচ্চাদালতে মামলা করার অজুহাত এনে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে অপারগতা প্রকাশ করে। তাই টোল আদায়ের দায়িত্ব নিজ কব্জায় রাখতে ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডারদের এনে জড়ো করে। রাত ১২টা ১ মিনিটে সড়ক ও জনপদের কর্মচারী দায়িত্ব বুঝে নিতে চাইলে তারা দিতে অস্বীকার করে। এ পর্যায়ে নিজামউদ্দিনের জড়ো করা ক্যাডাররা তাদের উপর হামলা করে। এমনকি এক কর্মচারীকে মারধর করেছে। খবর পেয়ে র‌্যাব-পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এছাড়াও সর্বনি¤œ দরদাতা হিসেবে নতুন ইজারা নেয়া ঠিকাদার মাসুদ খান ও পুরাতন নিজামউদ্দিনসহ প্রশাসনের উধ্বর্তন কর্মকর্তারা সমঝোতা বৈঠকে বসেছে।