দখিনা বিএনপির সংস্কারপন্থী নেতারা আর দলে ফিরছেন না? | Ajker Paribartan
Ajker Paribartan

দখিনা বিএনপির সংস্কারপন্থী নেতারা আর দলে ফিরছেন না?

বেলায়েত বাবলু বিএনপির বহুল প্রত্যাশিত কমিটি গঠনের পর উচ্ছ্বাস প্রকাশের পরিবর্তে ক্ষোভের বিস্ফোরণ যেমন ঘটছে তেমনি এক-এগারোর সময় নানা কারণে যারা আলোচিত-সমালোচিত ছিলেন তাদের দলে ফেরার সম্ভাবনাও কমে আসছে। দলত্যাগী, নিস্ক্রিয় ও সংস্কারপন্থি নেতাদের দলে ফিরিয়ে নেওয়া হবে এমন খবরে বিএনপির মূল স্রোতের বাইরে থাকা দক্ষিণাঞ্চলের নেতারা এতোদিন আশায় বুক বেঁধে থাকলেও সদ্য ঘোষিত কেন্দ্রীয় কমিটিতে তাদের ঠাঁই হয়নি। ফলে আপাতত তারা আর দলে ফিরছেন না এটা মোটামুটি নিশ্চিত।

এক সময় দলে ব্যাপক প্রভাবও ছিল তাঁদের। কিন্তু সেই তারা রাজনীতিতে এখন বেকার। দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকদের সমর্থনও এখন তাদের পক্ষে নেই। যে কারণে বিএনপিতে তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ অনিশ্চিতই হয়ে পড়েছে। কেউ কেউ অন্য দলে ভেড়ার চেষ্টাও করছেন। ঘোষিত কমিটিতে ঠাঁই না হওয়ায় এখন নতুন করে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, বিএনপির সংস্কারপন্থী সেই নেতারা কি আর দলে ফিরছেন না?

এক-এগারোর সময় সংস্কারপন্থীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া এবং পরে দল থেকে বহিষ্কৃত নেতাদের বিএনপিতে ফিরিয়ে নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল গত বছর। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের দলের শীর্ষ কয়েক নেতাকে এ ব্যাপারে দায়িত্বও দিয়েছিলেন। সে সূত্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা দলের বাইরে থাকা নেতাদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক বৈঠক করেছেন বলেও সেই সময়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

ওই সময়ে দলত্যাগী, নিস্ক্রিয় ও সংস্কারপন্থি নেতাদের দলে ফিরিয়ে নেওয়া হবে এমন খবরে আশায় বুক বেঁধেছিলেন বিএনপির মূল স্রোতের বাইরে থাকা দক্ষিণাঞ্চলের নেতারা। দলের দুঃসময়ে বিএনপির হয়ে ভূমিকাও রাখতে চেয়েছিলেন তারা। গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন ঐক্য। কিন্তু সেই প্রক্রিয়া আর বেশী দূর এগোয়নি। জানা যায়, ওয়ান-ইলেভেনের সময় সংস্কারের অভিযোগে দলের মূল স্রোতের বাইরে চলে যাওয়া সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শাহ মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জহিরউদ্দিন স্বপন, সাবেক এমপি মোশাররফ হোসেন মঙ্গু, ইলেন ভুট্টো ও নুরুল ইসলাম মণি দলের দায়িত্বশীল পদে আসীন হতে উদগ্রীব ছিলেন। কিন্তু সদ্য ঘোষিত কেন্দ্রীয় কমিটিতে তাদের ঠাঁই হয়নি।

সংস্কারের অজুহাতে দলের মূলধারা থেকে ছিটকে পড়েন সাবেক এমপি মঙ্গু। হারিয়েছেন দলের মনোনয়নও। প্রতিদ্বন্দ্বী এ্যাড. জয়নুল আবেদীন বিএনপির বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যানের পদে আসীন হলেও কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য পদ নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে মোশাররফ হোসেন মঙ্গুকে। এখন তার অনুসারী কিছু বিএনপি নেতা-কর্মী নিয়ে তৎপরতা চালালেও তা মূল স্রোতের বাইরে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) দুবারের ভিপি শাহ মুহাম্মদ আবুল হোসাইন ২০০১ সালের নির্বাচনে কাকতালীয়ভাবে বরিশাল-৪ (মেহেন্দিগঞ্জ) আসনে বিএনপির মনোনয়নে এমপি নির্বাচিত হন। পরে ওই সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী হন তিনি। তবে হঠাৎ করেই ওয়ান-ইলেভেনের সময় সংস্কারপন্থি বনে যান। ফলে ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হন তিনি। তাকে বাদ দিয়ে বরিশাল (উত্তর) জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহউদ্দিন ফরহাদকে দল মনোনয়ন দিলে তিনি এমপি নির্বাচিত হন। এর পর থেকে দলের কোনো পর্যায়েই নেই সাবেক এ অর্থ প্রতিমন্ত্রী। মাঝেমধ্যে নির্বাচনী এলাকায় এলেও পারিবারিকভাবে সময় কাটিয়ে আবার নীরবে চলে যান ঢাকা।

দলের মূলধারায় ফিরতে উন্মুখ ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং বরিশাল-১ আসনের সাবেক এমপি জহিরউদ্দিন স্বপন। তিনিও দলের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখেছিলেন এবং মোটামুটি নিশ্চিত ছিলেন পদ-পদবী দিয়ে তাকে দলে ফিরিয়ে নেয়া হবে। কিন্তু সদ্য ঘোষিত কমিটিতে তারও ঠাঁই হয়নি।

জাতীয় পার্টি থেকে বিএনপিতে যোগদানকারী ঝালকাঠির সাবেক এমপি ইলেন ভুট্টো সংস্কারের অভিযোগে ছিটকে পড়েছেন রাজনীতি থেকে। মাঝে মধ্যে নির্বাচনী এলাকায় সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা চালিয়েও কিছুতেই কিছু করতে পারছেন না তিনি।

ওয়ান-ইলেভেনের সময় সংস্কারপন্থি হিসেবে বরগুনার সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম মণি রাজনীতি থেকে নিজেকে অনেকটা আড়াল করে রেখেছেন। এলাকায়ও তেমন একটা যাওয়া-আসা নেই তার। ঘনিষ্টদের কাছ থেকে জানা গেছে ঢাকা ও মালয়েশিয়ায় ব্যবসা পরিচালনা করেই ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি।

সংস্কারপন্থী হিসেবে বিএনপির রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়া সাবেক হুইপ ও বানারীপাড়ার সাবেক এমপি শহীদুল হক জামাল কিছুদিন দলে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করলেও পরে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছেন। মাঝে সংস্কারপন্থীদের নিয়ে নতুন প্লাটফর্মে রাজনীতি করার ইচ্ছায় পুনরায় সক্রিয় হলেও আবার তিনি নিজেকে আড়াল করে রাখা শুরু করেছেন। শোনা যাচ্ছে যেকোন সময় তিনি বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে নতুন দলে যোগদান করবেন।

Share via email
Share