দক্ষিনাঞ্চলের বিএনপির সাংগঠনিক সফরের নেতৃত্বে সরোয়ার সহ কেন্দ্রের ৭ নেতা

রুবেল খান ॥ তৃনমুলকে সু-সংগঠিত করার পাশাপাশি পরবর্তী সরকার বিরোধী আন্দোলন শক্তি করার লক্ষে শুরু হয়েছে দেশ ব্যাপী সাংগঠনিক সফর। জেলা ও মহানগর পর্যায়ে কর্মী সভার মাধ্যমে সাংগঠনিক সফর কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। সে অনুযায়ী বরিশালেও সাংগঠনিক সফরের জন্য গঠন করা হয়েছে পৃথক টিম। কেন্দ্রের হেভিওয়েট ৭ নেতার নেতৃত্বে বরিশালের বিএনপি’র সাংগঠনিক ৮ জেলায় কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেকটি টিমের সাথেই বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকদের সদস্য হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে।
তবে কবে থেকে কেন্দ্রীয় নেতারা বরিশালে সাংগঠনিক সফর শুরু করবেন সে বিষয়ে গতকাল সোমবার পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় দলের মহাসচিব এর সাথে বৈঠকের মাধ্যমে সফরের সময় নির্ধারনের পাশাপাশি টিম লিডারদের দিক নির্দেশনা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন।
তিনি বলেন, আগামী ঈদের পর পরই সরকার বিরোধী আন্দোলন শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর তাই আন্দোলনের পূর্বে দলকে শক্তিশালী এবং তৃনমুলকে সু-সংগঠিত করার লক্ষে দলের চেয়ারপার্সনের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশ ব্যাপী সাংগঠনিক সফর শুরু হয়েছে। গত ২২ এপ্রিল হতে শুরু হওয়া সাংগঠনিক সফর আগামী ৭ মে’র মধ্যে শেষ করার দিক নির্দেশনা রয়েছে।
তিনি জানান, বরিশালে বিএনপি’র সাংগঠনিক ৮ জেলা সফর এবং কর্মী সভার নেতৃত্ব দেয়া হয়েছে কেন্দ্রের উচ্চ পর্যায়ের ৭ নেতাকে। তারা সবাই চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা, স্থায়ী কমিটির সদস্য, দলের ভাইস চেয়ারম্যান এবং যুগ্ম মহাসচিব । তারা পৃথক পৃথক ভাবে সাংগঠনিক সফর এর নেতৃত্ব দিবেন।
সে অনুযায়ী বরিশাল মহানগরে সাংগঠনিক সফর এর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর্জা আব্বাসকে। এর পাশাপাশি বরিশাল জেলা (উত্তর) এবং দক্ষিন এর নেতৃত্বও দিবেন তিনি। তার সাথে থাকবেন বিএনপি বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এবং দুই সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক। এর পাশাপাশি মহানগর বিএনপি সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক সাংগঠনিক সফর এবং কর্মী সভার কার্যক্রম সম্পন্ন করবেন।
এছাড়া ঝালকাঠি জেলায় সাংগঠনিক সফর টিমের নেতৃত্ব দেয়া হয়েছে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্সাল আলতফ হোসেন চৌধুরীকে। পিরোজপুর জেলায় সাংগঠনিক টিমের প্রধান করা হয়েছে চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আসাদুজ্জামান রিপন, পটুয়াখালী জেলার সাংগঠনিক টিমের প্রধান করা হয়েছে চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবকে, বরগুনা জেলার সাংগঠনিক সফর টিমের প্রধানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরীকে এবং ভোলা জেলা সাংগঠনিক সফর টিম এর নেতৃত্বের দায়িত্ব পেয়েছেন বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব ও জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ ও এমপি এ্যাড. মজিবুর রহমান সরোয়ার।
টিম প্রধানরা ছাড়াও তাদের সাথে সফর সঙ্গি হিসেবে প্রত্যেকটি জেলার সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সফর টিমের সদস্য করা হয়েছে বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে থাকা বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান ও মাহাবুবুল আলম নান্নুকে। এর বাইরে সংশ্লিষ্ট জেলা ও মহানগর কমিটির সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদকরা বিএনপি’র সাংগঠনিক সফরে থাকবেন বলে জানাগেছে।
বরিশাল বিভাগীয় বিএনপি’র দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন বলেন, ২২ এপ্রিল হতে সফর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে প্রেরিত চিঠি হাতে পেয়েছি। তবে কবে থেকে সফর শুরু হবে সে বিষয়ে কোন দিক নির্দেশনা দেয়া হয়নি। অবশ্য ৭ মে’র মধ্যে সফর শেষ করার দিক নির্দেশনা রয়েছে।
তিনি বলেন, সাংগঠনিক সফর এর বিষয়ে আজ মঙ্গলবার ঢাকায় এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপি’র মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংগঠনিক সফর টিমের প্রধান এবং বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহ- সাংগঠনিক সম্পাদকদের সাথে বৈঠক করবেন। এ বৈঠকের মাধ্যমে সফরের উদ্দেশ্য, কার্যকারীতা এবং করনিয় সম্পর্কে দিক নির্দেশনা দিবেন। তিনি বলেন, এই বৈঠকের মাধ্যমেই মহাসচিব বরিশাল বিভাগে সাংগঠনিক সফর এর দিন ক্ষন নির্ধারন করে দিতে পারেন। বৈঠকের আগে এ বিষয়ে সু-স্পষ্ট করে কিছু বলা সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছেন তিনি।