দক্ষিণাঞ্চলে বসন্তে গ্রীষ্মের আবহ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বসন্তের শুরুতেই দক্ষিণাঞ্চল যুড়ে গ্রীষ্মের আবহ। এবার মধ্য মাঘ পার হবার সাথেই শীত বিদায়ের পাশাপাশি তাপমাত্রার পারদ ক্রমশ ওপরে উঠতে থাকে। ইতোমধ্যে সর্বনি¤œ তাপামাত্রা ২৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস ছুঁই ছুঁই করছে। দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও ৩৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস ছাড়িয়েছে। আবহাওয়া বিভাগ তাপমাত্রা হ্রাসের কোন সম্ভাবনার কথা জানাতে পারেনি। গত দিন তিনেক যাবতই দুপুর ১২টার পরে বরিশাল মহানগরীর রাস্তাঘাটে মানুষের পদচারনা কমতে শুরু করে। পড়ন্ত বিকেল নগরবাসী বিভিন্ন পার্ক ও নদীর পাড়ে একটু স্বস্তি খোঁজার চেষ্টা করছেন পরিজনদের নিয়ে।
আবহাওয়া বিভাগ তার দীর্ঘ মেয়াদী বুলেটিনে চলতি মাসে সারা দেশের সাথে দক্ষিণাঞ্চলেও তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকার কথা বললেও এখন সর্বনি¤œ তাপমাত্রা সে পর্যায়ের প্রায় ৫ডিগ্রী সেলসিয়াস বেশী। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও প্রায় একইভাবে ওপরে রয়েছে। চলতি মাসে বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলে স্বাভাবিক সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ১৪.৯ ডিগী সেলসিয়াস থাকার কথা। কিন্তু গতকাল তা ছিল ১৯.৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং পটুয়াখালীর কলাপাড়াতে সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ২২.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসে উঠেছে । বৃহস্পতিবারে বরিশালে সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল ২০ ডিগ্রীর ওপরে। অপরদিকে মৌসুমের এসময়ে বরিশাল অঞ্চলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৮.২ ডিগ্রী সেলসিয়াস থাকার কথা থাকলেও গতকাল পটুয়াখালীতে তাপমাত্রার পারদ ৩৪.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসে উঠে যায়। বরিশালে তা ছিল ৩৩.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস। তবে এরই মধ্যে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পাবার কথা জানিয়েছে আবহায়া বিভাগ।
আবহাওয়া বিভাগের মতে, মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। পাশাপাশি শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহায়া বিভাগ। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানান হয়েছে আবহায়া দফতর থেকে।
চলতি মৌসুমে আবহাওয়ার বিরূপ আচরণ গমের উৎপাদনে বিরূপ প্রভাব পড়ার আশংকা রয়েছে। পাশাপাশি মেঘলা আবহাওয়ার সাথে শেষ রাতের কুয়াশায় রোপা বোরা ধান সহ এর বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে। বিরুপ প্রভাব পড়ছে অন্যান্য রবি ফসল সহ শাক সবজীর ক্ষেত্রেও।