দক্ষিণাঞ্চলে অন্য বছরের তুলনায় আগেই কড়া নাড়ছে শীত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ দেশের দক্ষিণাঞ্চলবাশীর দড়জায় গত কয়েক বছরের তুলনায় একটু আগেই শীত কড়া নাড়তে শুরু করলেও অগ্রহায়নের এসময়ে তাকে স্বাভাবিক বলছেন আবহাওয়া পর্যবেক্ষকগন। তবে নভেম্বরের শেষভাগে তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় কিছুটা নিচেই ছিল। আজ থেকে শুরু হওয়া ডিসেম্বরে তাপমাত্রার পারদ ধীরে ধীরে আরো নিচে নামবে বলে মনে করা হচ্ছে। স্বাভাবিক গতিতে বর্ষা মওশুম বিদায়ের পরে অগ্রহায়নের প্রথমভাগে বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ থেকে নিম্নচাপের প্রভাবে অসময়ের হালকা থেকে মঝারী বৃষ্টিপাতে জনজীবেন বিরূপ প্রভাব ফেলে। পাশাপাশি মাঠে থাকা উঠতি আমনের জন্যও তা যথেষ্ঠ ঝুকে বাড়ায়। তবে দুদিনের মধ্যে সে নিম্নচাপ দূর্বল হয়ে আবহাওয়ার উন্নতি ঘটলেও দক্ষিনের মাঠ ভড়া আমনের সাথী ফসল খেশারী ডালের জন্য তা যথেষ্ঠ ঝুকি বৃদ্ধি করেছে। বেশীরভাগ পাকা ধান ও খেশারী ডালের জমিতে পানি জমে যায়।
এবার অগ্রহায়নের মধ্যভাগ শুরুর আগেই তাপমাত্রার পারদ ১৮ডিগ্রী নিচে নামতে শুরু করে। আবহাওয়া দফ্তরের মতে নভেম্বরে বরিশাল অঞ্চলে সর্বনিম্ন স্বাভাবিক তাপমাত্রা থাকার কথা ১৮ডিগ্রী সেলসিয়াসের মত। কিন্তু গত এক সপ্তাহে দক্ষিণাঞ্চলে তাপমাত্রার পারদ ১৫ডিগ্রী থেকে গতকাল ১৪.২ডিগ্রীতে হৃাস পায়। গত সপ্তাহখানেক যাবতই শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত মেঘনা অববাহিকা হালকা থেকে মাঝারী কুয়াশার চাঁদরে ঢাকা পাড়ছে। আকাশও হালকা মেঘাচ্ছন্ন হয়ে পড়ছে বারে বারে। ফলে দক্ষিনের প্রধান খাদ্য ফসল আমন নিয়ে কিশানীদের ব্যস্ততা আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে। ভাটি এলাকার আমন বিলম্বে কাটতে হচ্ছে। এসময়ে ধান সিদ্ধ ও শুকানোর মূল সময়। কিন্তু দৈনিক সূর্য কিরনকাল ৩-৪ঘন্টারও কম। ফলে দক্ষিণাঞ্চলে আমন ধান শুকানো নিয়ে কিশান-কিশানীদের পরিশ্রম ও দূর্ভাবনাও বাড়ছে। সকাল পর্যন্ত কুয়াশার পরে মেঘাচ্ছন্ন আকাশ জনস্বাস্থের পাশাপাশি উঠতি আমন ধানেরও ঝুকি বাড়াচ্ছে।
আবহাওয়া বিভাগের মতে, মওশুমী স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর বর্ধিতাংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ ভারতের বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে অস্থায়ী মেঘলা আকাশ সহ আবহাওয়া শুষ্ক থাকার কথাও বলা হয়েছে। রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবির্তিত থাকার কথা জানিয়ে শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারেও বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফ্তর। তবে আজ সকালের পরবর্তি ৪৮ঘন্টায় আবহাওয়ার বর্তমান পরিস্থিতির সামান্য পরিবর্তনের সম্ভবনার কথাও বলা হয়েছে বুলেটিনে। গতকাল সকালে বরিশালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.২ডিগ্রী সেলসিয়াস। তবে গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় সাতক্ষীরায় ১২ ডিগ্রী সেলসিয়াস।