তাপ প্রবাহে স্বস্তি মঙ্গলবার রাতের বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শরতের লাগাতার তাপ প্রবাহের পরে মঙ্গলবার রাতে সামান্য ৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত দক্ষিণাঞ্চলবাসীকে কিছুটা স্বস্তি দিয়েছে। পাশাপাশি গতকাল দুপুরের পরে আকাশ কালো করা মেঘ আর গর্জনের সাথে হিমেল হাওয়া উত্বপ্ত আবহাওয়াকে কিছুটা শান্ত করলেও সন্ধ্যা পর্যন্ত বৃষ্টির দেখা মেলেনি। গত তিনদিন ধরেই বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্নস্থানে দুপুরের পরে আকাশ কালো করা মেঘে দিগন্ত ঢেকে যাচ্ছে। তবে বৃষ্টির দেখা খুব একটা মিলছেই না। গত ২৪ সেপ্টেম্বরের পরে মঙ্গলবার রাতেই বরিশালে মাত্র ৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এবৃষ্টিপাত আমন ফসলের জন্য যথেষ্ঠ উপকারী হলেও চলতি মাসে দক্ষিণাঞ্চল সহ সারা দেশেই স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়ে রেখেছে আবহাওয়া বিভাগ।
তবে গত দুটি মাসই বরিশাল সহ দেশের অধিকাংশ স্থানে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। সেপ্টেম্বর মাসে বরিশাল অঞ্চলে স্বাভাবিক ৩১৬ মিলিমিটারের স্থলে ৩৬২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। মূলত গতমাসে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু উত্তর বঙ্গোপসাগরে বেশি মাত্রায় সক্রিয় থাকায় দেশের উপকূলীয় এলাকায় স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টি হলেও দেশের অনত্র ছিল বিপরীত চিত্র।
গতকাল সকালে আবহাওয়া বিভাগের বুলেটিনে ‘দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাংশ হতে অপসারিত হয়েছে বলে জানান হয়েছে। পাশাপাশি মৌসুমী বায়ুর বর্ধিতাংশের অক্ষ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দক্ষিণাংশ হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটির বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের দক্ষিণাংশে ও উত্তর পূর্বাংশে মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারী অবস্থায় বিরাজ করছে বলেও জানান হয়েছে। এরফলে দক্ষিণাঞ্চল সহ উপকূলভাগ জুড়ে আকাশ কালো করা মেঘের সাথে হালকা থেকে মাঝারী বৃষ্টি হচ্ছে। এমনকি আজ সকাল থেকে পরবর্তি ৪৮ ঘন্টার শেষভাগে উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টিপাতের প্রবনতা বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।
তবে চলতি মাসে সারা দেশেই স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম বৃষ্টিপাত সম্ভাবনার কথা আগাম জানিয়ে মাসের প্রথমার্ধের মধ্যে দক্ষিণÑপশ্চিম মৌসুমী বায়ুপ্রবাহ বা বর্ষা দেশ থেকে বিদায় নিতে পারে বলেও জানিয়ে রেখেছে আবহাওয়া বিভাগ। এমনকি গতকাল সকালের বুলেটিনে ‘দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাংশ থেকে বিদায় নিয়েছে বলেও বলা হয়েছে। তবে চলতি মাসেই বঙ্গোপসাগরে ১-২ টি নি¤œচাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্ক করে এর মধ্যে অন্তত একটি ঘূির্ণঝড়ে রূপ নিতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।
বিগত দুটি মাস স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বেশি বৃষ্টি হলেও বছরের শুরু থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলেই বৃষ্টিপাতের পরিমান ছিল কম। এমনকি চলতি মাসেও কম বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। এর ফলে বরিশাল সহ দক্ষিণাঞ্চলের মাঠে থাকা ৭ লক্ষাধীক হেক্টর জমির আমন ফসলে কিছুটা ঝুঁকি বাড়তে পারে বলেও মনে করছেন কৃষিবীদগন। এমনকি আবহাওয়া বিভাগের দীর্ঘ মেয়াদী বুলেটিনে চলতি মাসে রোপা আমনে ফুল অবস্থায় পানির অভাব দেখা দিলে সম্পূরক সেচ প্রদান করার প্রয়োজন হতে পারে বলেও জানান হয়েছে। এ মাসে দেশের দৈনিক গড় বাষ্পীভবন ৩-৪ মিলিমিটার এবং গড় সূর্য কিরণকাল সোয়া ৬ থেকে সোয়া ৭ ঘন্টা থাকতে পারে বলেও জানান হয়েছে।