ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর স্ত্রীর মর্যাদার জন্য প্রেমিকের বাড়ীর সামনে অনশন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ স্ত্রীর মর্যাদা পেতে ডাক্তার স্বামীর বাড়ির সামনে অনশন করেছে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়–য়া এক মেধাবী ছাত্রী। সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত এই কলেজ ছাত্রী স্বামীর দরজার সামনে দাড়িয়ে আকুতি জানালেও তাকে ঘরে তুলে নেয়নি তার শ্বশুর-শাশুড়ী।
গতকাল শনিবার নগরীর বান্দ রোডে শেবাচিম হাসপাতালের সাবেক ইএমও এবং বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের টিএইচও ডা. এম নূরুল ইসলাম চুন্নুর বাড়ির সামনে এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, ডা. এম নূরুল ইসলাম চুন্নু’র ছেলে ইসলাম ডেন্টাল কেয়ার’র ডেন্টিস্ট ডা. মো. তানভির ইসলাম এর সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের এক ছাত্রী। ডাক্তার তানভির প্রেমের সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে ঐ ছাত্রীর সাথে অবৈধ মেলামেশা করে। তবে একটি পর্যায় চিকিৎসক বাবা ডা. এম নূরুল ইসলাম চুন্নু এবং তার স্ত্রীর চাপ সৃষ্টির কারনে তাদের ছেলে ডা. তানভির ঐ ছাত্রীর প্রেম অস্বীকার করেন।
তারা আরো জানান, বেশ কয়েকদিন যাবত নারী লোভি তানভির ঐ তরুনীকে এড়িয়ে চলেন। এমনকি তার মোবাইল ফোন পর্যন্ত রিসিভ করেনি। এমন পরিস্থিতিতে অনেক খোঁজা খুজির পর ঐ তরুনী গতকাল শনিবার সকালে বান্দ রোডে ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিল কার্যালয় সংলগ্ন ডা. এম নূরুল ইসলাম চুন্নু এবং তার প্রতারক প্রেমিক ডা. তানভিরের বাসা খুজে বের করেন। এসময় সে বাসায় প্রবেশ করতে চাইলে ডা. চুন্নু এবং তার স্ত্রী ঐ তরুনীকে বাসায় প্রবেশ করতে দেয়নি। এ নিয়ে তরুনী বাসার সামনে অনেক চিৎকার চেচামেচি এবং কান্না করেন। এসময় তিনি তাকে বিয়ে করে ঘরে তোলার জন্য প্রতারক প্রেমিক ডা. তানভিরকে বলেন।
সূত্রগুলো আরো জানায়, বিকাল ৪টা পর্যন্ত ঐ তরুনীকে বাসার সমনে দাড় করিয়ে রাখা হয়। খবর পেয়ে সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গেলে বিষয়টি ধামা চাপা দিতে তরুনীকে কৌশলে বাড়ির ভেতর নিয়ে যায়। তবে এ বিষয়ে ডা. চুন্নু, তার ছেলে ডা. তানভির এমনকি পরিবারের কেউ কোন প্রকার তথ্য দিতে অপরাগতা প্রকাশ করে। তবে ডা. চুন্নু’র সহকারী জানিয়েছে তরুনীর বাড়ি টাঙ্গাইলে। সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সম্মান করেছে। এটা পারিবারিক ব্যাপার। তারা নিজেরাই বিষয়টি সমাধান করছেন।
এদিকে ঐ তরুনীর সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তিনিও রহস্যজনক ভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যান। এ বিষয়ে কোন প্রকার সহযোগিতার প্রয়োজন হলে তিনিই সাংবাদিকদের জানাবেন বলেও তরুনী জানান।