ড্র হওয়ার পূর্বে সবুজ বাংলা বন্ধ করেছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ টিকেটের ড্র হওয়ার আগেই বরিশাল আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার দৈনিক সবুজ বাংলা র‌্যাফেল ড্র বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। গতকাল রাতে ড্র হবার প্রায় আধা ঘন্টা আগে মেলার মাঠে গিয়ে ড্র বন্ধ করে দেন তারা। এদিকে দিনভর প্রায় ১০ লক্ষ টাকার টিকেট বিক্রির পর ড্র না দেয়ায় মেলার মাঠে বিক্ষোভ করে লটারির টিকেট ক্রেতারা। পরে পুলিশ এবং মেলা আয়োজকদের আশ্বাসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে দৈনিক সবুজ বাংলা র‌্যাফেল ড্র কর্তৃপক্ষ মেলা আয়োজক এবং পুলিশ টিকেটের লাখ লাখ টাকা ভাগবাটোয়ারা করে নিবে বলে অভিযোগ করেন গ্রাহকরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রতিদিন আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার নামে অন্যতম জুয়া দৈনিক সবুজ বাংলা র‌্যাফেল ড্র প্রতিদিন একাধিক মোটর সাইকেল, টিভি, ফ্রিজ, স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোন সহ নানা ধরনের পুরষ্কারের প্রলোভন দেখিয়ে টিকেট বিক্রি করে সাধারণ মানুষের লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। এমনকি স্যাটেলাইট চ্যানেল বিটিসিএন এবং স্কাই ভিশন চ্যানেলে ড্র এর স্বচ্ছতা প্রমাণ করাতে সরাসরি প্রচার করা হয়। এতে ঘরের কাজের বুয়া থেকে শুরু করে রিক্সা চালক, দিন মজুর সবাই টিকেট ক্রয় করেন। ঘরে বাজার না কিনে সেই টাকা দিয়ে পুরস্কারের আশায় কিনছেন টিকেট। অন্যের কাছ থেকে ধার করে টিকেট কেনার টাকা আনছেন। সন্ধ্যার পরেই পরিবারের সবাই টিকেট নম্বর মেলাতে বসে যাচ্ছেন টিভি সেটের সামনে। যার ফলে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের লেখা পড়ায় মারাত্মক বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে। এমনকি এনিয়ে ঘরে ঘরে কলহ সৃষ্টি হলেও লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় মেলার আয়োজক ক্ষমতাসীন আ’লীগের নেতাকর্মী ও র‌্যাফেল ড্র কর্তৃপক্ষ। এদিকে প্রতিদিনের ন্যায় গতকাল মোটর সাইকেল, স্বর্ণালংকার সহ বিভিন্ন পুরষ্কারের প্রলোভন দেখিয়ে সকাল থেকৈ রাত পর্যন্ত ৭৫টি বক্সে ভ্রাম্যমান ও মাঠে প্রায় ৫০ হাজার টিকেট বিক্রি করে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করে। রাতে মেলায় টিকেট মিলাতে বাণিজ্য মেলার মাঠে এবং টিভি সেটের সামনে বসে যান টিকেট ক্রেতারা। ঠিক তখনই কোতয়ালি মডেল থানার পুলিশ সদস্যরা মাঠে এসে ড্র বন্ধ করে দেন। এ সময় দর্শকরা উত্তেজিত হয়ে তাদের টাকা ফেরত চান। কিন্তু পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে পুলিশ এবং র‌্যাফেল ড্র কর্তৃপক্ষ গতকালের ড্র পরবর্তীতে হবে বলে ঘোষনা দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্য মেলার দৈনিক সবুজ বাংলা র‌্যাফেল ড্র চরিচালনাকারী (উপস্থাপক) লিটন শেখ জানান, তারা লটারির সময় বৃদ্ধির জন্য ঢাকায় আবেদন করেছেন। অনুমোদন কার্যক্রম অনেকটা গুছ হয়েছে। আগামী ২৭ এপ্রিল অনুমোদন পাবেন। আগামীকাল ২৪ এপ্রিলের ড্র অনুষ্ঠিত করবেন। কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানান, মেলার মেয়াদ শেষ হয়েছে। তাই এখন মেলায় র‌্যাফেল ড্র সহ যাত্রা-জুয়া চালাতে হলে অন্যান্য যাত্রা-জুয়া পুলিশের সাথে যেই চুক্তিতে চালাচ্ছে, বাণিজ্য মেলার যাত্রা-জুয়া আর র‌্যাফেল ড্র সেই চুক্তিতে চালাতে পারবে না।