ডিসির অনুরোধে আলো জ্বলছে ষ্টেডিয়ামে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ২৫ লক্ষাধিক টাকা বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের ঘানি টেনে চলেছে বরিশাল শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়াম। বকেয়া বিল পরিষদের জন্য একের পর এক নোটিশ দিলেও স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ বকেয়া বিল পরিষদে ব্যর্থ হন। অবশেষে নিরুপায় বিদ্যুৎ বিভাগ কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়ে কেটে দিয়েছে স্টেডিয়ামের বিদ্যুৎ সংযোগ। গতকাল রবিবার বেলা ১২টার দিকে স্টেডিয়ামের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দেন তারা। তবে সংযোগ বিচ্ছিনের ৫ ঘন্টা পরে জেলা প্রশাসকের অনুরোধে পূণরায় বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপন করে দিয়েছেন বিদ্যুৎ বিভাগ।
এই বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করে বরিশাল ওয়েষ্ট জোন পাওয়ার ডিস্টিবিউশন কোম্পানির নগরীর বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরন কেন্দ্র-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী এটিএম তারিকুল ইসলাম জানান, বরিশাল শহীদ আব্দুর রব স্টেডিয়ামে নিয়মিত বিদ্যুৎ ব্যবহার হলেও বিল পরিশোধ করেনি কর্তৃপক্ষ। গত ৪৬ সাম তথা ৩ বছর ১০ মাস এক টানা বিদ্যুৎ ব্যবহার করলেও বিল পরিশোধ করেনি। যার ফলে ৩ বছর ১০ মাসে বিদ্যুৎ বিল এর বকেয়া দাড়িয়েছে ২০ লক্ষ ৩৭ হাজার।
তিনি আরো জানান, কম্পিউটার পদ্ধতিতে বিদ্যুৎ বিল কার্যক্রম চালুর পূর্বে ২০০৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষের কাছে আরো সাড়ে ৪ লক্ষ টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। দীর্ঘ দিনের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষকে একাধিক নোটিশ করা হয়েছে। এমনকি বিল পরিশোধ না করায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের নোটিশও প্রদান করেন তারা। কিন্তু এরপরও স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে কর্ণপাত করেনি। যার ফলে প্রধান কার্যালয় থেকে তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে। তাই বাধ্য হয়েই গতকাল রবিবার বেলা ১২টার দিকে তারা স্টেডিয়ামের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দেন।
নির্বাহী প্রকৌশলী এটিএম তারিকুল ইসলাম আরো জানান, স্টেডিয়ামের গেষ্ট রুমে নৌ বাহিনীর একটি গ্রুপ আশ্রয় নিয়েছে। যে কারনে বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলম বিদ্যুৎ সংযোগ পূণ:স্থাপনের জন্য অনুরোধ জানান। তাই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নের প্রায় ৫ ঘন্টা পর বিকাল ৫টার দিকে সাময়িক সময়ের জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ পূণস্থাপন করে দিয়েছেন। নৌ বাহিনী সেখান থেকে চলে গেলে বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় বিচ্ছিন্ন করা হবে। তবে এই সময়ের মধ্যে বকেয়া বিল পরিশোধ করলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে না।
জানতে চাইলে বরিশাল জেলা ক্রিড়া সংস্থার সদস্য সচিব মো. আমিনুল ইসলাম সুরুজ পরিবর্তনকে জানান, বিদ্যুৎ বিল পরিষদের জন্য বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে দেয়া একাধিক নোটিশ তারা পেয়েছেন। কিন্তু আমাদের পক্ষে কিছু করার নেই। কেননা সরকারী ভাবে বরাদ্দ না দেয়ায় বিল পরিশোধ করতে পারিনি। বিষয়টি মন্ত্রনালয়কে অবহিত করা হয়েছে। তারাই এই বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।