টিটিসির দশম শ্রেনীর ছাত্রের আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নগরীর বাগানবাড়ি এলাকায় গলায় ফাঁস দিয়ে ১০ শ্রেনীর এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছে। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টিটিসি) ছাত্র আল আমিন (১৭)। সে ১৩ নম্বর ওয়ার্ড খান সড়ক বাগান বাড়ির মন্টু সিকদারের ছেলে। তার বাবা মেডিকেল কলেজের পেছনের গেটে ভাতের হোটেলের ব্যবসা করে আসছেন। আল আমিন এর পূর্বে আরো একবার আত্মতহ্যার চেষ্টা চালিয়ে ছিলো। কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে শেবাচিমের মর্গে প্রেরন করেছে।
কোতয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক এসআই সাইদুল ইসলাম জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে বাগান বাড়িতে মন্টু সিকদারের বাসায় গিয়ে দেখতে পান তার এক মাত্র ছেলে আল আমিন ঘরের আড়ার সাথে লায়লনের দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে আত্মহত্যার সঠিক কোন আরন জানা যায়নি।
এসআই সাইদুল স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বলেন, আল আমিন মাদক সেবী ছিলো। নেশার ঘোরে হয়তো গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সম্প্রতি আল-আমিন বিয়ের করার জন্য বায়না ধরে। কিন্তু তার বয়স কম হওয়ায় পরিবার থেকে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাক্ষন করে। এ কারনেই আল-আমিন আত্মহত্যা করতে পারে বলেও দাবী করেন তার বাবা মন্টু।
তিনি আরো জানান, আর আগেও আল আমিন একবার আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছিলো। একটি মোটর সাইকেল কিনে না দেয়ায় সে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। তখন কিছুদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধিন ছিলো আল আমিন। পরে সুস্থ হলে তাকে একটি মোটর সাইকেল কিনে দেন বাবা।