জেলখাল অভিযান নিঃসন্দেহে একটি বিপ্লব

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় সভা সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামানের সভাপতিত্বে এতে আলোচক ছিলেন দক্ষতা ও উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ মানিক মাহমুদ, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং বরিশালের সিটিজেন জার্নালিস্ট সদস্যরা।
বক্তারা বলেন, বরিশালে জেলখাল উদ্ধার ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান নিঃসন্দেহে একটি বিপ্লব। বাংলাদেশের যেকোন বিভাগ ও জেলার মানুষের জন্য এটা অনুকরনীয় হতে পারে। জেলখাল পুনঃরুদ্ধার উন্নয়ন মাইল ফলক হয়ে থাকবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে সারাদেশে যে কার্যক্রম চলমান আছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এর একটি মূল্যায়ন তালিকা করা হচ্ছে। সারাদেশ থেকে ১৩টি ডিজিটাল কার্যক্রম ওই তালিকায় স্থান পাবে। এর মধ্যে বরিশালের ফেসবুক গ্রুপ সমস্যা ও সম্ভাবনার কার্যক্রম স্থান পেয়েছে।
সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দৈনিক আজকের পরিবর্তনের সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ, ৭১ টেলিভিশনের বরিশাল প্রতিনিধি বিধান সরকার, অনলাইন নিউজ পোর্টালের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন, সাঈদ বারী, খন্দকার রাকীব।
বরিশাল সমস্যা ও সম্ভাবনা ফেসবুক গ্রুপের পক্ষ থেকে সদস্য দিপু হাফিজুর রহমান, মোমেনা শিফা রুমকী, ইব্রাহীম মাসুম বক্তব্য রাখেন।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বরিশালবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, এখানকার সাধারন জনগনের সর্বাত্মক সহযোগীতার কারনেই আজকে জেলখাল পুনরুদ্ধার সম্ভব হয়েছে। জনগন যেভাবে জেলখাল উদ্ধারে সর্বাত্মক সাড়া দিয়েছেন তেমনি সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডে প্রশাসনের পাশে থাকার জন্য বরিশালবাসীর প্রতি আহবান জানান জেলা প্রশাসক। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তৃতা দিতে গিয়ে এটিএন নিউজের বার্তা প্রধান মুন্নি সাহা বলেন, বরিশালের জনগণ অসম্ভবকে সম্ভব করেছে। এটি সারা দেশের জন্য মডেল হিসেবে উপস্থাপিত হবে। তিনি বরিশালের মেধাবী তরুণ তরুণীদের তার চ্যানেলের অনুষ্ঠান ‘ইয়ং নাইটে’ আসার জন্য আমন্ত্রণ জানান। ৭১ টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাকিল আহম্মেদ তার বক্তৃতায় বলেন, আমি বরিশালের জেলা প্রশাসকের এই কর্মযজ্ঞ দেখে অভিভূত। সারাদেশ এ থেকে শিক্ষা নিতে পারে।