জিএসএমএ চেয়ারম্যান’স অ্যাওয়ার্ড পেলেন আজিয়াটা’র প্রেসিডেন্ট ও গ্রুপ সিইও

ঢাকা থেকে জিএম রফিকুল ইসলাম মিলন ॥ বিশ্বে টেলিযোগাযোগ শিল্পের অগ্রগতি ও প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধিতে অবদানের জন্য ২০১৫ সালের জিএসএমএ চেয়ারম্যান’স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন মালয়েশিয়ার অন্যতম শীর্ষ টেলিযোগাযোগ গ্রুপ রবি আজিয়াটা লিমিটেডের মূল কোম্পানি আজিয়াটা বারহাদের প্রেসিডেন্ট ও গ্রুপ সিইও দাতো’ শ্রি জামালউদ্দিন ইব্রাহিম।
১৯৯৬ সাল থেকে প্রতি বছর স্পেনে অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে এ পুরস্কারটি প্রদান করা হয়। ২০১৫ সালের পুরস্কার গতকাল স্পেনের বার্সেলোনায় হস্তান্তর করা হয়।
দাতো শ্রি জামালউদ্দিনকে পুরস্কার দেয়ার সময় জিএসএমএ’র চেয়ারম্যান ফ্রেডরিক বাকসাস বলেন, “চেয়ারম্যান’স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করায় জিএসএমএ’র পক্ষ থেকে জামালকে অভিনন্দন। অ্যাওয়ার্ডটি জামালের অসাধারণ নেতৃত্ব, প্রতিশ্রুতি রক্ষা এবং এশিয়া জুড়ে মোবাইল যোগাযোগকে এগিয়ে নেয়া, বিশেষ করে ওই অঞ্চলে মোবাইল ব্রডব্যান্ডের প্রসারে আজিয়াটার ভূমিকারই স্বীকৃতি। এছাড়া অন্যান্য অনেক কোম্পানির মত জিএসএম’র বিভিন্ন কর্মসূচি যেমন: মোবাইলের জন্য পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ, নারীর অংশগ্রহণ, এম-হেলথ ও মোবাইল কানেক্টে আজিয়াটার প্রতিনিয়ত সহযোগিতার স্বীকৃতিও এই অ্যাওয়ার্ড। জিএসএমএ বোর্ডে জামালের অবস্থান ও সংস্থাটির ডেপুটি চেয়ারের ভূমিকাটিও বিবেচনায় আনা হয়েছে।’
দাতো’ শ্রি জামালউদ্দিন বলেন, “মার্যাদাপূর্ণ এই পুরস্কারটি পেয়ে আমি গর্বিত। আজিয়াটা ডিজিটাল বিশ্বে সবসময় প্রতিকূল পরিস্থিতি জয় করে, পরিবর্তনের সাথে দ্রুত খাপ খাইয়ে এবং অগ্রগতি ধরে রাখতে ব্যবসায়িক মডেলের উন্নয়নের দিকে নজর দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। ‘এশিয়াকে এগিয়ে নাও’ পদক্ষেপের মাধ্যমে আমরা যেসব দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করি সে সব দেশের উন্নয়নের অংশীদার হয়ে এবং সেখানকার মানুষের জীবনযাত্রায় বৈচিত্র্য এনে আমরা দায়িত্বশীল কর্পোরেট সিটিজেনের ভূমিকা পালন করছি। ’
দাতো’ শ্রি জামালউদ্দিনের নেতৃত্বে এশিয়ার বৃহত্তম মোবাইল নেটওয়ার্কে পরিণত হয়েছে আজিয়াটা। আটটি দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করছে আজিয়াটা এবং এর গ্রাহক সংখ্যা ২৫ কোটির বেশি। ডিমার্জারের পর থেকে আজিয়াটা গ্রুপের রাজস্ব প্রায় দ্বিগুণের বেশি হয়ে ৫ দশমিক ৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে এবং আইপিও’র পর থেকে মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন দ্বিগুণ হয়ে ১৮ দশমিক ৭ বিলিয়নে পৌঁছেছে।
“এ পুরস্কার আমাদের সবার। পুরস্কারটি আমাদের দক্ষ ও যোগ্য কর্মকর্তা এবং কোম্পানিতে তাদের অবদানের স্বীকৃতি।”
মালয়েশিয়ায় ‘সেলকম’, ইন্দোনেশিয়ায় ‘এক্সএল’, শ্রীলঙ্কায় ‘ডায়লগ’, বাংলাদেশে ‘রবি’, কম্বোডিয়ায় ‘স্মার্ট’, ভারতে ‘আইডিয়া’ ও সিঙ্গাপুরে ‘এমওয়ান’ নামে কার্যক্রম পরিচালনা করে গ্রুপটি।
অঙ্গ ও সহযোগী প্রতিষ্ঠানসহ এশিয়ায় ২৫ কোটির বেশি মোবাইল ফোন গ্রাহক রয়েছে আজিয়াটা গ্রুপের। ২০১৪ সালে গ্রুপের রাজস্ব ছিল আরএম ১৮ দশমিক ৭ বিলিয়ন। এশিয়াজুড়ে গ্রুপের কর্মকর্তার সংখ্যা ২০ হাজারের বেশি। এশিয়াকে এগিয়ে নেয়ার উদ্দেশে এশিয়াকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয়ে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রক্ষা, প্রযুক্তি ও মেধা বিনিয়ের মাধ্যমে ২০১৫ সালের মধ্যে এই অঞ্চলে শীর্ষ টেলিকম অপারেটর হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে আজিয়াটা।
আজিয়াটা ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৩ ও ২০১৪ সালে এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যাওয়ার্ডে বেস্ট টেলিকম গ্রুপের পুরস্কার এবং এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশে কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ২০১০ ও ২০১১ সালে টেলিকম এশিয়া বেস্ট রিজিওনাল মোবাইল গ্রুপ পুরস্কার অর্জন করে।