ছাত্রলীগ নেতার হাতে সদর খাদ্য পরিদর্শক লাঞ্চিত

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ এক কর্মকর্তার বদলির জন্য মন্ত্রনালয়ে চিঠি পাঠানোর অভিযোগে বরিশাল সদর খাদ্য পরিদর্শক ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করেছে ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ সেরনিয়াবাত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে নগরীর ক্লাব রোডে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় র‌্যাব এবং পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে নাহিদ সেরনিয়াবাতকে ঘটনাস্থল থেকে পাঠিয়ে দেয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল ১০ টার দিকে নাহিদ সেরনিয়াবাদের নেতৃত্বে ১০ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রিন্স ও জুবায়ের আলম সহ একটি গ্রুপ কা¬ব রোডের খাদ্য বিভাগ কার্যালয়ে যায়। এ সময় তারা সদর খাদ্য পরিদর্শক ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জলিল সিকদারকে অকথ্য ভাষায় গালি দেয়।
খবর পেয়ে র‌্যাব-৮ ও পুলিশের টহল দল ঘটনাস্থলে যায়। তারা নাহিদ সেরনিয়াবাদকে খাদ্য বিভাগের কার্যালয় থেকে বের করে দেয়। পাশাপাশি কোন প্রকার অভিযোগ থাকলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করতে বলেন তারা।
জানতে চাইলে খাদ্য পরিদর্শক ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জলিল সিকদার তাকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নাহিদ সেরনিয়াবাত যে অভিযোগ করেছেন সে বিষয়ে আমার কিছুই জানা নেই। আমার এই পদে বদলীর জন্য নগরীর সিএসডি (ত্রিশ গোডাইন) খাদ্য পরিদর্শক রফিকুল ইসলামের পক্ষ নিয়ে সিএসডি’র জসিম উদ্দিন এ ধরনের ষড়যন্ত্র করেছে বলে শুনেছি। এ বিষয়টি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে জানিয়েছেন। তারা যে সিদ্ধান্ত দিবেন সে অনুযায়ী আজ তিনি ব্যবস্থা নিবেন বলেও জানান তিনি।
ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ সেরনিয়াবাত জানান, সদর খাদ্য পরিদর্শক ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জলিল সিকদার সদর আসনের এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ’র স্বাক্ষর জাল করে সহকারী উপ-খাদ্য পরিদর্শক জসিম উদ্দিনকে অন্যত্র বদলীর জন্য মন্ত্রনালয়ে চিঠি দিয়েছে। এ কারনেই বিষয়টি জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনি এবং দলীয় নেতারা সেখানে গেছেন। তবে কাউকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ অস্বীকার করেন নাহিদ।