ছাত্রলীগের নেতাদের ক্ষমা চেয়ে পার পেলো বরি’র ছাত্রদলের দুই নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) ছাত্রলীগের কাছে ক্ষমা চেয়ে রেহাই পেলো দুই ছাত্রদল নেতা। গতকাল বুধবার পরিক্ষা দিয়ে বের হওয়ার সময় ছাত্রলীগের রোষানলে পড়ে ক্ষমা চাইতে হয় তাদের।
এর পূর্বে বিএনপি, জামায়াত-শিবিরের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ববি ছাত্রলীগ। এ সময় ক্যাম্পাস থেকে লাঠি-সোটা ও রড উদ্ধার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। পাশাপাশি বিক্ষোভ মিছিলকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
ববি’র একাধিক সূত্র জানায়, বুধবার ছাত্রলীগের বিক্ষোভ চলাকালে ছাত্রদলের দুই নেতা মার্কেটিং তৃতীয় বর্ষের ৫ম সেমিষ্টারের রিয়াদ ও শিফাত মোটর সাইকেল নিয়ে পরীক্ষা দিতে ক্যাম্পাসে আসে। এ সময় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাদের মোটর সাইকেল নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশে বাধা দিলে তা উপেক্ষা করে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে ছাত্র দলের নেতারা।
এদিকে ক্যাম্পাসে হঠাৎ করে ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল বের করলে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া ক্যাম্পাসে প্রবেশ করায় পুলিশের সাথে ছাত্রলীগের বাদানুবাদ হয়। এসময় শিক্ষক সমিতির সভাপতি শফিউল আলমের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।
অন্যদিকে পরীক্ষা দিতে আসা মার্কেটিং তৃতীয় বর্ষের ৫ম সেমিষ্টারের ছাত্র এবং ছাত্রদল নেতা রিয়াদ ও শিফাত একাডেমিক ভবনের ভিতরে আটকা পড়ে। পরে পুলিশ ও শিক্ষার্থীদের সহায়তায় তাকে একাডেমিক বিভাগ থেকে বের করে আনা হয়। পরে মোটর সাইকেল নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ এবং ইতোপূর্বে সকল অপরাধের জন্য ক্ষমা চাইলে ছাত্রলীগের হাত থেকে ছাত্রলদের দুই নেতা রক্ষা পায়।
ছাত্রলীগ নেতা জহির জানান, রিয়াদ ও শিফাত ইতিপূর্বে ক্যাম্পাসে উদ্ভট পরিস্থিতি সৃষ্টি ও স্বাভাবিক পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনায় নানান ধরনের উস্কানীমুলক কর্মকান্ড পরিচালনা করেছে। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা বিষয়টি জানতে পারেছে, তারা তা বুঝতে পেরে ক্যাম্পাসে আসা বন্ধ করে দেয়। তবে পরীক্ষার জন্য তারা ক্যাম্পাসে আসলে ছাত্রলীগের কর্মীরা তাদের উপর চড়াও হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে দাবী মডেল থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানিয়েছেন।