ছাত্রদল সভাপতি ইয়াবাসহ আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ কুয়াকাটায় বেড়াতে যাবার পথে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে ছাত্র দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রাজিব আহসানসহ ৫ জন। গত রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে লেবুখালী ফেরিঘাট থেকে তাদেরক আটক করে পটুয়াখালীর দুমকি থানা পুলিশ। এসময় রাজিব আহসান এর কাছ থেকে ৪৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও এক বোতল মদ উদ্ধারের পাশাপাশি তার ব্যবহৃত লাল রং এর একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পটুয়াখালী জেলা পুলিশ।
জানাগেছে, মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার সন্তান ও ছাত্র দল কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি রাজীব আহসান ঈদের দিন নিজ বাড়িতে ঘুরতে আসে। পরবর্তীতে গত রবিবার রাতে বন্ধুদের নিয়ে কুয়াকাটার উদ্দেশ্যে একটি লাল রং এর মাইক্রোবাসে রওয়ানা হন।
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মিডিয়া উইং এর সদস্য খায়রুল কবির খান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, রাজিব আহসান ফেরার পথে গোয়েন্দা পুলিশেল একটি দল লেবুখালী ফেরিঘাট থেকে তাকে আটক করে দুমকি থানায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে রাতে গোয়েন্দা (ডিবি) কার্যালয়ে নিয়ে রাখা হয়েছে। কোন প্রকার অভিযোগ ছাড়াই তাকে আটক করা হয়েছে বলে মিডিয়া উইং এর এই সদস্য নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে রাতে মুঠো ফোনে আলাপকালে পটুয়াখালী জেলা পুলিশের সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) সাহেব আলী পাঠান বলেন, রাজিব হোসেন খানকে সন্দেহজনক ভাবে আটক করা হয়। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাতেই পটুয়াখালী সদর গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
তবে গতকাল সোমবার সকালে পুনরায় মুঠো ফোনে সার্কেল এএসপি সাহেব আলী পাঠান জানান, রাতে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি রাজিব আহসান এর দেয়া তথ্য অনুযায়ী তার ব্যবহৃত লাল রং এর মাইক্রোতে তল্লাশি চালিয়ে ৪৫ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। নিষিদ্ধ এবং অবৈধ মাদক দ্রব্য রাখার দায়ে রাজিব আহসানকে গ্রেফতার করে গতকাল আদালতে চালান করা হয়েছে। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও ঢাকায় তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।