চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতায় আগৈলঝাড়ার অঙ্কন চ্যাম্পিয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে অঙ্কন। প্রথম রানার আপ হয়েছে ঐক্য আর দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে ঐশী। পুরো প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ায় তিলোত্তমাকে দেওয়া হয় বিশেষ পুরস্কার। পুরস্কার হিসাবে চ্যাম্পিয়ন আগৈলঝাড়ার বাহাদুরপুর গ্রামের অর্ণব রায় অংকন অঙ্কন পেয়েছে ৫ লাখ টাকা, ঐক্য পেয়েছে ৩ লাখ আর ঐশী পেয়েছে ২ লাখ টাকা। চূড়ান্ত এই সাতজন প্রতিযোগী চ্যানেল আই ও রেডিও ভূমিতে অনুষ্ঠান করার সুযোগ পাবে, ইমপ্রেস অডিও ভিশন তাদের অ্যালবাম প্রকাশ করবে এবং ক্যমব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজে বিনা খরচে পড়ার সুযোগ পাবে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘ডিওন চকলেটচ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজ’ সিজন সিক্সের গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। ফাইনালে অংশ নেয় সাতজন প্রতিযোগী। এখানে জানানো হয়, ৬৫ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে বিভিন্ন ধাঁপে ৪৪টা পর্ব পেরিয়ে ফাইনালে আসে প্রান্ত, অঙ্কন, ঐক্য, ঐশী, তিলোত্তমা, অথি ও ঈশিকা।
গ্র্যান্ড ফিনালের বিচারক ছিলেন দুই নিয়মিত বিচারক নজরুলসংগীতশিল্পী ফেরদৌস আরা ও ব্যান্ড তারকা এস আই টুটুল। এছাড়া মুম্বাই থেকে এসেছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী মিতালী মুখার্জি। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ও চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, পরিচালক মুকিত মজুমদার, গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ, শরীফ মেলামাইনের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রাজ্জাক শরীফসহ প্রতিযোগিতার তিন বিচারক।
ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, ‘বিজয়ীসহ ফাইনালে অংশ নেওয়া সব প্রতিযোগীই চ্যানেল আই পরিবারের সদস্যা। তারা দেশের সংগীতাঙ্গনে ভূমিকা রাখবে।’ শাইখ সিরাজ বলেন, ‘ফাইনালে অংশ নেওয়া সাত প্রতিযোগীর পড়ালেখার দায়ভার চ্যানেল আইয়ের। তাদেরকে বিনামূল্যে ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়াবে ইমপ্রেস গ্রুপ।’ বিচারক এস আই টুটুল বলেন, ‘ওরা সবাই খুবই মেধাবী। সেরা বেছে নেওয়া ছিল আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। সেরা ১৪ জনে যারা ছিল তাদের সবাইকে আমি গানে সুযোগ দেব।’ ক্ষুদে সাংস্কৃতিক প্রতিভা অর্ণব রায় অংকন নজরুল সঙ্গীত ও উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়েও সাফল্য অর্জন করেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে নজরুল সঙ্গীতে দ্বিতীয় এবং উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতে তৃতীয় স্থান লাভ করেছিল।