চেক প্রতারনা মামলায় ছাত্রলীগ নেতা নাহিদকে আদালতের সমন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চেক দিয়ে প্রতারনার মামলায় বিএম কলেজ’র অস্থায়ী ছাত্রকর্ম পরিষদের সাবেক জিএস ও ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ সেরনিয়াবাতকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আলী হোসাইন এ নির্দেশ দেন । তার বিরুদ্ধে চেক দিয়ে প্রতারনার অভিযোগে আমানতগঞ্জের বাসিন্দা জাহিদ হোসেনের করা মামলায় প্রেক্ষিতে ওই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নাহিদ নগরীর কাশিপুর ইছাকাঠি সড়কের মৃত সিরাজুল হক সেরনিয়াবাতের ছেলে এবং বর্তমানে প্রফেসর গলির বাসিন্দা। মামলা সুত্রে জানাগেছে, প্রতারনা করে অন্যের টাকা আত্মসাৎ করা নাহিদ সেরনিয়াবাতের নেশা। সে কোন আইনের ধার ধারে না। ব্যবসায়িক পরিচয়ে নাহিদের কাছে বাদী জাহিদ হোসেনের ৬২ লাখ ৩৭ হাজার টাকা পাওনা হয়। টাকা ফেরত চাইলে টালবাহানা শুরু করে। এর এক পর্যায় গত ২১ জুন প্রিমিয়ার ব্যাংকের নাহিদ এন্টারপ্রাইজ নাম হিসাবের উল্লেখিত টাকার একটি চেক দেয়। ৪ জুলাই চেকটি ব্যাংকে জমা দেয়া হলে তা প্রত্যাখ্যাত হয়। ৬ জুলাই নাহিদকে আইনি নোটিশ দেয় জাহিদ। এরপরও টাকা পরিশোধ না করায় গতকাল মামলা করলে বিচারক ওই আদেশ দেন।