চুরির অপবাদে শিশুর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ চুরির অপবাদ সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে ১০ বছর বয়সি এক অভিমানি শিশু। গতকাল রবিবার বিকাল ৪টায় নগরীর ৯ নং ওয়ার্ডের রসুলপুর বস্তিতে এই ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুর নাম আবেদ হোসেন।
এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে এমনটি দাবী করা হলেও ঘটনাটি রহস্যজনক বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। তাদের দাবী মাত্র ১০ বছর বয়সি এই শিশুটির অপমৃত্যু নিয়ে ভেতরগত কোন কারন থাকতে পারে।
হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম আজাদ শিশুটির পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে জানান, পলাশপুর এলাকার ঐ শিশুটির ঘরের পাশে এক ব্যক্তির একটি মেমোরি কার্ড চুরি হয়। এর চুরির দায় শিশুটির উপর চাপিয়ে দেয়। এ নিয়ে তার পরিবারের সদস্যরা শিশুটির উপর চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু শিশুটি চুরি করেনি এমন সত্যি কাউকে বিশ্বাস করাতে না পেরে ঘরের মধ্যে লায়লনের দড়ির সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা’র চেষ্টা করে।
ঘটনাটি টের পেয়ে পরিবারের সদস্যরা শিশুটিকে উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এসময় জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে ময়না তদন্তের জন্য লাশটি হাসপাতালের লাশ ঘরে রাখা হয়েছে।
এদিকে পরিবারের সূত্রগুলো জানায়, যে ব্যক্তির মেমোরি কার্ড হারিয়েছে তিনি আবেদ’র নামে চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়েছে। এর প্রমান স্বরূপ তারা জানান, শিশুটি আত্মহত্যার পর চুরি যাওয়া মেমোরি কার্ডটি অপর এক ছেলের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। তবে তার নাম জানাতে পারেনি নিহতের স্বজনরা।