চরফ্যাশনের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট গ্রেপ্তার

চরফ্যাশন প্রতিবেদক ॥ পুত্র সন্তানের আশায় নাবালিকাকে বিয়ে করা বহুল আলোচিত চরফ্যাশনের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রবকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সন্ধ্যার পূর্বে চরফ্যাশন থানার ওসি তাকে গ্রেপ্তার করেন। ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব মিয়া পটুয়াখালী জেলার  গলাচিপা উপজেলার আমখোলা গ্রামের মৃত হযরত আলী হাওলাদারের ছেলে। ওসি আবুল বাসার জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে দায়েরকৃত মামলায়  ট্রাইব্যুনালের জারীকৃত গ্রেপ্তারী পরোয়ানার ভিত্তিতে ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব মিয়াকে ভোলা সদর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভোলা সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানান, সম্প্রতি ভোলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব মিয়ার স্ত্রী সানজিদা খালেক পলাশ বাদি হয়ে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করা হয়। সেই পরোয়ানায় তাকে গ্রেপ্তার করা
হয়েছে।
অপর একটি সূত্র জানায়, গতকাল ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব মিয়া ভোলা সদর থানায় একটি জিডি করতে যান। সেখানে পূর্ব থেকে অপেক্ষমান চরফ্যাশন থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেন। প্রকাশ, গত ১৬ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার রাতে ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব চরফ্যাশন ডাকবাংলোতে এক নারী সঙ্গীনিসহ জনতার রোষে পড়েন। তখন তিনি ওই   নারী সঙ্গীনিকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে পরিচয় দিয়ে পার পেয়ে যান। এ নিয়ে মিডিয়ায় বিস্তর তোলপাড় শুরু হয়। পাশাপাশি ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রব মিয়ার বিতর্কিত নানান কর্মকান্ড নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকসহ সর্বত্র আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বহিতে থাকে।