গোড়াচাঁদ দাস রোডে বিরোধীয় জমির নিস্পত্তি করেছে উকিল কমিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বরিশাল জেলা সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের নির্দেশে এ্যাডভোকেট প্রশাসনের সহায়তায় অবশেষে ফিরে পেলেন আব্দুল মান্নানের বসবাসরত জমি। গতকাল দুপুর ১২টায় এ্যাডঃ রতন দাস জমির মালিককে জমি বুঝিয়ে দেন। ঘটনা সূত্রে দীর্ঘ ১২ বছর যাবত নগরীর গোড়াচাঁদ দাস রোড এ থাকা এপেক্স হোমিও কলেজের সাথে আব্দুল মান্নানের জমির সীমানা নির্ধারন নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। পূর্বে জমির মালিক জমি বুঝে পাওয়ার জন্য এপেক্স হোমিও কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানালে তাতে লাভ না হওয়ায় বরিশাল জেলা সিনিয়র সহকারী জজ নির্দেশে গতকাল জমি বুঝিয়ে দেয়া হয় আব্দুল মান্নানকে। এ্যাডঃ রতন দাস জমির মালিক মান্নানকে তার জমির সীমানা নির্ধারণ করে দেন। জমি মাপার সময় একই এলাকায় থাকা কিছু লোক বাধা প্রদান করতে আসলে প্রশাসনের সহায়তায় তারা পিছু হটে। অপরদিকে মান্নানের জমিতে তার নিকট আত্মীয় ৪-৫টি হিন্দু সম্প্রদায় পরিবার দীর্ঘ বছর ধরে বাস করে আসছে। জমির মালিকের কাছে জমি বুঝিয়ে দেয়া ও দীর্ঘ বছর যাবত জমির পাহারা থাকার জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের পরিবারের ওপর স্থানীয় কিছু সংখ্যক লোক হুমকি ধামকি দেয়। এক পর্যায়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের পরিবার প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে এলাকার একটি প্রভাবশালী চক্র জমি দখলের পায়তারা চালাতে গিয়ে এসব পরিবারকে অবরুদ্ধ করে ফেলে। পরে গনমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হলে পিছু হটে ভূমি দস্যুরা। আবারও এসব চক্র সক্রিয় হতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন নিরীহ পরিবারের সদস্যরা।