গণপূর্ত প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ঠিকাদারকে আটকে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঠিকাদারকে আটকে রেখে শারিরিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে বরিশাল গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে। গতকাল দুপুরে বরিশাল বান্দ রোডস্থ নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ের মধ্যে এই ঘটনা ঘটে। জিয়াউর রহমান জিয়া নামে ওই ঠিকাদার নির্ধারিত সময়ের পূর্বে খুলে রাখা দরপত্র বাক্সের ছবি তোলায় তাকে লাঞ্ছিত করে নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন। বরিশাল গনপূর্ত অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল মেরিন একাডেমির বহুতল ভবন নির্মানের জন্য গত ২০ মে সাড়ে চার কোটি টাকার দরপত্র আহবান করে গনপূর্ত বিভাগ। গতকাল সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ছিল দরপত্র জমাদানের নির্ধারিত সময়। বেলা সাড়ে ১১টার সময় কয়েকজন ঠিকাদার নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেনর কক্ষে প্রবেশ করেন। এসময় তিনি দরপত্র বাক্স খুলে ওই ঠিকাদারদের দেখান। এসময় ভেতরে প্রবেশ করেন ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জিয়া। তিনি খোলা দরপত্র বাক্সের ছবি তুলেন। বিষয়টি নির্বাহী প্রকৌশলী দেখতে পেয়ে তাকে তার কক্ষে ধরে নিয়ে আসেন। এরপর সেখানে অবস্থানরত ঠিকাদারদের নিয়ে জিয়াকে লাঞ্ছিত করেন নির্বাহী প্রকৌশলী। জিয়াউর রহমান জিয়া বলেন, গনপুর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন তার কক্ষে বসে কয়েকজন ঠিকাদারকে দরপত্র জমাদান শেষ হবার পূর্বেই বাক্স খুলে দেখাচ্ছিলেন। তখন ওই ঠিকাদাররা দরপত্র বাক্স থেকে কয়েকটি দরপত্র সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করছিল। বিষয়টি নিয়ম বহির্ভূত বিধায় আমি একটি ছবি তুলেছিলাম। লাঞ্ছিতের বিষয়টি অস্বীকার করে গনপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন জানান, দরপত্র জমাদানের শেষ সময় ছিল দুপুর বারোটা পর্যন্ত। নির্ধারিত সময় শেষ হবার পর আমরা নিয়মানুযায়ী দরপত্র বাক্স খুলছিলাম। ওই সময় জিয়াউর রহমান নামে এক ব্যক্তি আমার কক্ষে প্রবেশ করে দরপত্র বাক্সের ছবি তুলে বাইরে চলে যায়। এসময় তিনি ওই ছবিটি মুছতে না চাইলে পুলিশের সহযোগিতায় জোর করে ছবিটি মুছে ফেলা হয়।