কুয়াকাটায় খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

কুয়াকাটা প্রতিবেদক॥ কুয়াকাটার তাহেরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় মাঠে খোলা অকাশের নিচে পাটি বিছিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হচ্ছে। চলতি বছর নতুন ভবন না হলে শিক্ষার্থীদের পাঠদান সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়ে যাবে এমন আশংকা করছেন শিক্ষক ও অভিভাবকরা।
প্রতিষ্ঠান সুত্র জানা যায়, ১৯৯৭-৯৮ অর্থ বছরে এলজিইডির অর্থায়নে প্রায় ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪ কক্ষের একতলা একটি ভবন নির্মিত হয়। তখন থেকে ৫টি শ্রেণির পাঠদানসহ প্রশাসনিক কার্যক্রম চালাতে অনেকটা হিমশিস খেতে হয়েছে। বর্তমানে একটি কক্ষ ব্যবহারের উপযোগি থাকলেও বাকিগুলো জরাজীর্ণ অবস্থায় রয়েছে। বছরের শেষ দিকে শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষাকে সামনে রেখে শিক্ষার্থীদের এভাবে স্কুল মাঠে পাটি বিছিয়ে ক্লাস নিচ্ছে।
ওই প্রতিষ্ঠানের পিএসসি পরীক্ষার্থী ওয়ালিদ বলেন, সামনে পরীক্ষা ক্লাস না করেও উপায় নেই। সকালে কুয়াশায় ভিজে এবং সারাদিন রোদে পুড়ে ক্লাস করতে গিয়ে গত এক মাসে অসুস্থ হয়ে পরেছি। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী তুলি জানান, বই খাতা সহ বাড়তি একটি পাটি আনতে তার কষ্ট হচ্ছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল বশার বলেন, ভবনের প্রয়োজনীয়তা উল্লে¬খ করে স্কুল পরিচালনা কমিটি সিদ্ধান্ত ক্রমে সরকারের একাধিক দপ্তরসহ উপজেলা শিক্ষা অফিসে লিখিত আবেদন করা হয়েছে।
স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি শহিদুল আলম জানান, একমাত্র ভবনটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্র্ণ হওয়ায় এবং স্কুল মাঠে ক্লাস নেওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসা বন্ধ করে দিয়েছে।
কলাপাড়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রুহুল আমীন বলেন, ওই প্রতিষ্ঠানের ভবনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এমন দাবী করে সংশি¬ষ্ট দপ্তরে চাহিদা পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।