কীর্তনখোলা নদীতে দুই স্পীডবোর্ডের মুখোমুখি সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ অবৈধ স্প্রীড বোর্ড ডুবির ঘটনায় অল্পের জন্য প্রানে রক্ষা পেলো ১১ যাত্রী। ভোলা থেকে যাত্রী নিয়ে আসা স্পিড বোর্ডটি কীর্তনখোলা নদীতে ডুবে গেলে কোস্ট গার্ড সদস্যরা যাত্রীদের উদ্ধার করে। গতকাল সোমবার বেলা ১২টার দিকে কীর্তনখোলা নদীর স্টিমার ঘাট পয়েন্টে দুটি অবৈধ স্প্রীড বোর্ডের মুখোমুখি সংঘর্ষের ফলে এ ঘটনা ঘটে।
কোস্টগার্ড সদস্যরা জানায়, ভোলা থেকে একটি স্পীডবোড ১১ জন যাত্রী নিয়ে নগরীর ডিসি ঘাট সংলগ্ন ঘাটের উদ্দেশ্যে আসে। ঘাট পয়েন্টে এসে পৌছালে বিপরীত মুখী অপরটির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ভোলা থেকে আসা স্পীডবোড যাত্রী সহ নদীতে ডুবে যায়। তখন কোস্ট গার্ডের টহল দল এসে চালক সহ ৬ জনকে উদ্ধার করে। এসময় তিনজন নিখোঁজ থাকলেও পরবর্তীতে তাদেরকেও উদ্ধার করে কোস্ট গার্ড। কোন প্রকার অনুমতি ছাড়া এবং উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রাশাসন এবং বিআইডব্লিউটিএ’র ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের কিছু অসাধু কর্মকর্তাকে উৎকোচ দিয়ে বরিশাল-ভোলা সহ বিভিন্ন রুটে চলাচল করছে এসব অবৈধ স্পিড বোর্ড। আর এসব অসাধু কর্মকর্তার ঘুষ বানিজ্যের কারনেই স্পিড বোর্ডের সংঘর্ষে বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারত বলে মন্তব্য করেন স্থানীয়রা।