কালবৈশাখীতে লন্ডভন্ড বরিশাল গাছ চাপায় এ্যাম্বুল্যান্স চালক আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ কাল বৈশাখী ঝড় লন্ড ভন্ড করে দিলো বরিশাল নগরী সহ আশপাশের এলাকা। মাত্র ১০ মিনিটের এই ঝড়ে গাছের নিচে চাঁপা পড়ে আহত হয়েছে এক এ্যাম্বুলেন্স চালক সহ চার জন। এছাড়াও ঝড়ে এ্যাম্বুলেন্স দুমড়ে মুচড়ে যাওয়ার পাশাপাশি ঘর-বাড়ি, গাছ-পালা এবং ফসলের ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পাশাপাশি সড়ক মহাসড়কে গাছ ভেঙ্গে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে বরিশাল-ঢাকা ও বরিশাল-পটুয়াখালী সড়কে প্রায় ৩ ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিলো। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের প্রচেষ্টায় ঝড়ে ভেঙ্গে পড়া গাছ সরিয়ে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে। তাছাড়া আহতদের শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে ঝড়ে নিহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
আবহাওয়া অধিদপ্তর বরিশাল কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে দক্ষিণাঞ্চলে আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত দু’তিন দিন যাবত সন্ধ্যার পর থেকে বিভিন্ন সময় হালকা থেকে ভারি বর্ষন ও দমকা হাওয়া সহ কাল বৈশাখী ঝড় হয়। এর ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার রাতে কাল বৈশাখী ঝড়ের পাশাপাশি ভারি বর্ষনের সৃষ্টি হয়।
আবহাওয়া অধিদপ্তর বরিশাল কার্যালয়ের জেষ্ঠ্য পর্যবেক্ষক মো. মিলন হাওলাদার আজকের পরিবর্তনকে জানান, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে বরিশাল নগরী এবং আশপাশের এলাকায় কাল বৈশাখী ঝড় হয়। এসময় বাতাসের গতীবেগ ছিলো সর্বোচ্চ ঘন্টায় ৫৫ কিলোমিটার। যা বর্তমান মৌসুমের সর্বোচ্চ বাতাসের গতীবেগ । এর পূর্বে গত রোববার ঝড়ের সময় বাতাসের গতীবেগ ছিলো ঘন্টায় ৪০ কিলোমিটার।
তিনি জানান, রাত ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত বৃষ্টি অব্যাহত ছিলো। তবে তাৎক্ষনিক ভাবে বৃষ্টি পরিমাপ সম্ভব না হলেও প্রায় ২০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে ধারনা করেন তিনি।
বরিশাল ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স’র জ্যেষ্ঠ ষ্টেশন অফিসার মোহাম্মদ আলাউদ্দিন জানান, এখন পর্যন্ত মৌসুমের সর্বোচ্চ ঝড়ে গতকাল নগরী সহ আশপাশের এলাকায় বেশ ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ঝড়ের সময় রাত ৯টার দিকে বরিশাল-ঢাকা মহা সড়কের কাশিপুর হাইস্কুল এন্ড কলেজের সামনে একটি বড় আকাড়ের গাছ ভেঙ্গে পড়ে। এসময় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে রোগী পৌছে দিয়ে ফেরার পথে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর এ্যাম্বুলেন্স গাছের নিচে চাপা পড়ে। এতে ভেতরে থাকা চালক স্বপন (৪৫) গুরুতর আহত হয়। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। তার অবস্থা অনেকটা আশংকা জনক বলে তিনি জানান। দুর্ঘটনার সময় এ্যাম্বুলেন্সে অন্যকোন রোগী বা মানুষ ছিলো না বলে নিশ্চিত করে সিনিয়র ষ্টেশন অফিসার আলাউদ্দিন।
এছাড়া তিনি আরো জানান, বরিশাল-পটুয়াখালী সড়কের রূপাতলী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সামনে ঝড়ে বড় আকারের একটি গাছ ভেঙ্গে রাস্তার উপরে পড়ে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও বন্ধ ছিলো যানবাহন চলাচল। পরে তারা গাছটি কেটে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেন। ফলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
এছাড়া শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত সিনিয়র নার্স ইলিয়াস হোসেন জানান, এ্যাম্বুলেন্স চালাক স্বপন ছাড়াও ঝড়ের কবলে পড়ে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতুলে রিক্সা উল্টে আহত হয়েছে চালক রুস্তম আলী (৫৫)। তিনি ব্রিজ সংলগ্ন কর্ণকাঠি এলাকার হাসেম আলীর ছেলে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আরো দু’জন ঝড়ের কবলে আহত হয়েছে। তাদের জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ বরিশাল’র উপ-পরিচালক মো. আবুল বাশার মজুমদার জানান, ঝড়োহাওয়া এবং ভারি বর্ষনের কারনে নৌ-বন্দর গুলোকে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখানো হয়েছে। পাশাপাশি ৬৫ ফুটের নিচে সকল প্রকার নৌ-যান চলচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তাছাড়া বরিশাল থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া লঞ্চ গুলো প্রচন্ড বাতাস এবং বিপদ সীমা এড়াতে নদীর পাড়ে নোঙ্গর করে রাখা হয়। রাতে আবহাওয়া পরিস্থিতি সাভাবিক হলে লঞ্চ গুলো গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় বলে জানান এই কর্মকর্তা।
ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্টিবিউশন কোম্পানির বরিশাল বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরন কেন্দ্র-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী তরিকুল ইসলাম জানান, ঝড়ে নগরীর বিভিন্ন স্থানে গাছ পালা ভেঙ্গে বৈদ্যুতিক তার ছিড়েছে। যার ফলে ঝড়ের পরে নগরীর বিভিন্ন ফিডারে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিলো। রাতে ক্ষতিগ্রস্থ বিদ্যুৎ লাইন সংস্কার করে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া ঝড় শুরুর পর পরই বড় ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রাখা হয়।
অপরদিকে স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, ১০ মিনিটের কাল বৈশাখী ঝড়ে সদর উপজেলার কার্ণকাঠি, সায়েস্তাবাদ, চাদপুরা, বাবুগঞ্জ উপজেলা সহ দক্ষিণাঞ্চলে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে তাৎক্ষনিক ভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানা যায়নি।