কামরুল আহসান শাহীন এর সংক্ষিপ্ত জীবনী

১৯৫৮ সালের ১লা ডিসেম্বর নগরীর একটি সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা সদর রোডের ডাঃ সোবাহান কমপ্লেক্সের মালিক ডা. আবদুস সোবাহান। উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা জীবন শেষ করেন তিনি। এরপর ১৯৭৪ সালে বরিশাল বিএম কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। বিএম কলেজে পড়া অবস্থায় তিনি রাজনীতির সাথে যুক্ত হন। সর্বপ্রথম তিনি জাসদ ছাত্রলীগ নেতা ছিলেন।
এদিকে এইচএসসি পাশ করে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পরবর্তী শিক্ষা জীবন পার করেন তিনি। সেখান থেকে এমএ এলএলবি ও এলএলএম ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৮৭ সালের ২৩ মার্চ সর্ব প্রথম আইন পেশায় নিয়োজিত হন তিনি। এছাড়া ৮০ দশকের শেষের দিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালে বরিশাল আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটার (পিপি) নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৯৯ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত পর পর দু’বার বরিশাল জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচিত সম্পাদকের দায়িত্বে পালন করেন। একই সাথে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট ও হাইকোর্ট বারের সদস্য ছিলেন।
এছাড়া তিনি যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সমাজ সেবা ও সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করেন। বরিশাল জেলা যুবদলের সভাপতি ছিলেন তিনি। এর পরে জেলা বিএনপি’র মুল কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম’র সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এ্যাড. কামরুল আহসান শাহীন।
সর্বশেষ ২০১০ সালের ৮ ডিসেম্বর বরিশাল মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি।
রাজনীতি ও আইনজীবী পেশার বাইরে তিনি একজন ভালো ক্রীড়াবিদ ছিলেন। ১৯৭৭-৭৮ সালে ফুটবলে জাতীয় পর্যায়ে গোল রক্ষক হিসেবে খেলে বেশ সুনাম অর্জন করেন শাহীন। তিনি বরিশালে মোহমেডান স্পর্টিং ক্লাব এবং ঢাকার ওয়ান্ডার্স ক্লাবে’র হয়ে খেলতেন। এছাড়া বরিশাল জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল টিমের গোলরক্ষক ছিলেন এ্যাড. কামরুল আহসান শাহীন। এসব ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সহ বিভিন্ন সংগঠনের সভাপতি-সম্পাদক সহ গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।