কর্ণকাঠীতে জমি দখলে বাধাঁ পাওয়া ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের তান্ডব

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ জমি দখলে বাধা দেয়ায় নারী-পুরুষ সহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর একটার দিকে বরিশাল সদর উপজেলার কর্নকাঠি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন ঐ গ্রামের বাপ্পি হাওলাদার (২৫), রাজু (৩০), নাসরিন আক্তার (৩০), বাবু (২৭) ও মন্নাফ তালুকদার (৪০)।
আহতরা জানায়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিরোধপূর্ন জমি জবর দখলের চেষ্টা চালায় মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এর সমর্থক স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতারা। এ সময় জমির মালিকানা দাবীদার ও বারেক খানের ছেলে আল-আমিন, মামুন ও মাসুদ তাদের বাধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায় স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা দাবীদার রিফাত এর নেতৃত্বে ছাত্রলীগ নামধারী ২০/২৫ জন সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র, রড এবং লাঠি-সোটা নিয়ে মালিকানা দাবীকারীদের উপরে হামলা চালায়। এতে উল্লেখিতরা গুরুতর আহত হয়। খবর পেয়ে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। একই সাথে ছাত্রলীগকে আপাতত জমি দখল থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়ে চলে যায়।
জমির মালিকানা দাবীদার আল-আমিন জানায়, গত ৭ বছর পূর্বে মোয়াজ্জেল হোসেন নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে তার বাবা স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছ থেকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সংলগ্ন কর্নকাঠি মৌজার ১০ শতাংশ জমি ক্রয় করে। পরবর্তীতে সেখানে বাড়ি নির্মান করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু গত তিন বছর যাবত কবির হাওলাদার নামে এক ব্যক্তি ভূয়া দলীল তৈরী করে ঐ জমিটি তাদের দাবী করে আসছে। এছাড়া বিভিন্ন সময় জমির ভূয়া মালিকানা দাবীদার কবির জমিটি দখলে নিতে ব্যাপক পায়তারা চালায়। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার কবির হাওলাদার ছাত্রলীগ নামধারী ক্যাডারদের ভাড়া করে তাদের জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মানের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ আল-আমিনের।
তিনি আরো অভিযোগ করেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলাকারিদের আটক করেনি। তবে আপাতত জমি দখল থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়ে চলে আসে। কিন্তু ছাত্রলীগের উপস্থিতিতে কবির জমি জবর দখল অব্যহত রাখে।
জমি জবর দখলের অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা রিফাত ঐ জমিটি তার নিজের বলে দাবী করে। নিজের বিধায় সে ঐ জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মান করতে গিয়েছিলো বলে তিনি জানিয়েছেন।