কর্ণকাঠিতে প্রতিপক্ষের হামলায় মা-মেয়ে আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ গভির রাতে ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত মা- মেয়ের উপর হামলা এবং মারধরের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টার পরে বরিশাল সদর উপজেলার মধ্য কর্ণকাঠি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত হলো ওই এলাকার বাসিন্দা আবুল কালম এর স্ত্রী মাকসুদা বেগম (৪৫) ও তার মা মাহমুদা বেগম (৬০)। এদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় মাকসুদা বেগমকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাছাড়া হামলার ঘটনায় গতকাল শুক্রবার বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে কাউকে আটক করতে পারেনি।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মাকসুদা বেগম জানান, গত তিন বছর পূর্বে তার স্বামী একই এলাকার বাসিন্দা হাবিবুর রহমান এর কাছ থেকে ৯০ হাজার টাকা বায়না দিয়ে কিছু পরিমান জমি ক্রয় করেন। কিন্তু পরবর্তীতে ওই জমির দলিল বুঝিয়ে দেয়ার জন্য হাবিবুর রহমানকে চাপ সৃষ্টি করলেও সে আজ না কাল বলে কালক্ষেপন করে আসছিলো। সর্বশেষ তিনি মুল্য বৃদ্ধি’র কারনে জমি না দিয়ে টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে। এ নিয়ে তাদের মাঝে প্রায় এক বছর ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। বিষয়টি নিয়ে গতকাল শুক্রবার স্থানীয় ভাবে সালিশ মিমাংশার কথা ছিলো। কিন্তু এর আগেই বৃহস্পতিবার গভির রাতে হাবিবুর এবং রিপন হাওলাদার সহ বেশ কয়েকজন কালামকে তার ঘরে খোঁজ করতে আসে। তাকে না পেয়ে হাবিব ও রিপন সহ তাদের লোকজন ঘরের ভেতরে ঢুকে ঘুমিয়ে থাকা কালামের স্ত্রী মাকসুদা বেগম এবং বৃদ্ধা শাশুরী মাহমুদা বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহতরা ডাকাত বলে ডাক-চিৎকার শুরু করলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ছুটে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় মাকসুদা বেগমকে শেবাচিম হাসপাতালের সার্জারী বিভাগে ভর্তি করে । ঘটনার পরে গতকাল শুক্রবার দুপুরের দিকে মাকসুদা বেগম বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গোলাম মোস্তফা হায়দার বলেন, থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে হামলাকারীরা আত্মগোপনে চলে যায়। তবে তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।