এরশাদের সফর সফল ও বিফল করতে ব্যস্ত জাপার দুই গ্রুপ

রুবেল খান॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের বরিশাল সফর নিয়ে উৎকন্ঠা পিছু ছাড়ছে না নেতা-কর্মীদের। কেননা হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদকে বরিশালে আনা নিয়ে অটল অবস্থানে রয়েছে এক গ্রুপ। একই সাথে পার্টির চেয়ারম্যানের বরিশাল সফর ঠেকানোর সিদ্ধান্তে অনড় বিদ্রোহী গ্রুপ। নিজেদের মাঝে অস্থিত্বের এই লড়ায়ে জিততে দুই পক্ষই প্রায় প্রতিদিনই করছেন বৈঠক সহ নানা কার্যক্রম। তবে শেষ পর্যন্ত হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ’র বরিশাল সফল কোন পর্যায়ে গিয়ে দাড়ায় তা নিয়েই চিন্তিত এখানকার নেতৃবৃন্দ।
সূত্রমতে, দীর্ঘ দিন থেকেই বরিশাল জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টিতে অন্তদন্দ চলে আসছে। বিগত দিনে এই দ্বন্দ শুধু মাত্র তাদের নির্দিষ্ট চার দেয়ালের মধ্যে থাকলেও এখন তা বিষ্ফোরন হয়ে ফুটে উঠেছে। বরিশাল জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের পর থেকেই এমন পরিস্থিতি বিরাজমান। সর্বশেষ কয়েকদিন পূর্বে মহানগর জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব বশির আহম্মেদ ঝুনুকে তার পদ থেকে অব্যাহতি এবং তারই করা এক সংবাদ সম্মেলনে দলের পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়। আর এ থেকে শেষ পর্যন্ত শুরু হয়েছে দুই পক্ষের অস্তিত্বের লড়াই। লড়ায়ে মুল হিসেবে কাজ করছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাস্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ। তাকে নিয়ে দুই পক্ষের অস্তিত্বের লড়াইয়ে যারা হারবেন তারাই বরিশালে জাতীয় পার্টির রাজনীতি থেকে মাইনাজ ফরমুলায় চলে যাবে এমনটাই ধারনা করছেন তৃনমুল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
জাতীয় পার্টি বরিশাল মহানগর সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক এ্যাড. একেএম মুরতজা আবেদন জানান, বরিশাল জেলা ও মহানগরের সকল নেতা-কর্মীদের দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশা একটি সফল ও সুন্দর কাউন্সিলের মাধ্যমে পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন পল্লিবন্ধু আলহাজ্ব হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ নতুন কমিটি উপহার দিবেন। শেই প্রত্যাশা বাস্তাবায়নে বরিশাল পার্টির চেয়ারম্যানকে বরিশালে আনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে তার বরিশাল সফরের দিন নির্ধারন হয়েছে। আর মাত্র ৪ দিন পর ৮ জুন হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ নেতা-কর্মীদের স্বপ্ন পূরনে বরিশাল আসছেন। এ লক্ষে ইতোমধ্যে সকল আয়োজন প্রায় সম্পন্ন হয়েছে বলেও জানান তিনি।
এছাড়া তার বরিশাল সফর এবং কাউন্সিল সফল করার লক্ষে গত ১ জুন আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহানগর সম্মেলন কমিটির আহ্বায়ক এ্যাড. এ.কে.এম মুরতজা আবেদীন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় সদস্য সচিব আলতাফ হোসেন ভাট্টি, যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল বাছেত তালুকদার, কাজল তালুকদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
এদিকে ৮ জুন পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ এর বরিশাল সফর ঠেকাতে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। তারা ইতোমধ্যে জোট পাকিয়ে একের পর এক সভা, সমাবেশ করেছেন। তাদের মতে ঢাকায় অবস্থানরত বরিশালের শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং বরিশালের তৃনমুল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের সাথে আলোচনা এবং সরব অংশ গ্রহন ছাড়া পল্লীবন্ধু এরশাদকে বরিশালে নিয়ে আসার পায়তারা করা হবে আতœঘাতী। জাপা মহানগর সভাপতি দাবীদার মীর জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা চাই সকলে মিলে জাতীয় পার্টিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। এর ব্যতয় ঘটিয়ে জাতীয় পার্টিকে কেউ অন্ধকারে নিয়ে যেতে চাইলে তা বরদাস্ত করা হবে না বলেও জানান তিনি।
এদিকে জাতীয় পার্টির শীর্ষ স্থানীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ তাদের লক্ষ বাস্তবায়নে গত ১ জুন করেছেন এক রুদ্ধদ্বার সভা করেছেন। সেখানে জাপা জেলা সভাপতি মহসিন উল ইসলাম হাবুল, মহানগর জাপা’র সহ সভাপতি রুস্তম আলী খান, রফিকুল ইসলাম গফুর, যুগ্ম সম্পাদক বশির আহম্মেদ ঝুনু প্রমুখ সভায় বক্তব্য রাখেন। সভায় অচিরেই প্রতিনিধিসীল তৃনমূল জাতীয় পার্টির সভা করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।