এমএল টাইপ লঞ্চ চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ অভ্যন্তরীণ নৌ রুটে এমএল টাইপের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে থেমে থেমে বৃষ্টি এবং ঝড়ের আশংকায় দ্বিতীয় দিনের মত এসব লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। এরপূর্বে বৈরী আবহাওয়া ও নৌ রুট উত্তালের কারনে গত ২২ জুন বরিশাল নদী বন্দরগুলোকে দুই নম্বর সতর্ক সংকেত দেখানোর নির্দেশ দেন আবহাওয়া অধিদপ্তর বরিশাল কার্যালয়ের কর্তৃপক্ষ।
বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ বরিশাল এর উপ-পরিচালক আবুল বাশার মজুমদার পরিবর্তনকে জানান, গত ২২ জুন আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে বরিশাল নদী বন্দরকে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়। সেই অনুযায়ী তারা বরিশাল নদী বন্দরে দুই নম্বর সতর্ক সংকেত দেখানোর পাশাপাশি এমএল টাইপ (৬৫ ফুটের নিচে) সকল প্রকার নৌ যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন তারা।
আবুল বাশার মজুমদার বলেন, গত ২২ জুনের পর আবহাওয়া অফিস থেকে পরবর্তী কোন সংকেত পাওয়া যায়নি। তবে গতকাল মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনের ন্যায় পূনরায় দুই নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এ কারনে গতকাল সকাল থেকে এমএল টাইপের কোন লঞ্চ বা নৌ যান বরিশাল নদী বন্দর থেকে ছেড়ে যায়নি। এর ফলে গত দুই দিন নিষেধাজ্ঞার কারণে বাউফল, হিজলা ও বাহেরচর রুটের এমএল লিমা, এমএল শাহিন এবং এমএল মাহিন মার্শি-মাইশা নামের তিনটি লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ রুটে ৬৫ ফুটের উপরে সকল নৌ যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বরেও নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউট’র এই কর্মকর্তা।
আবহাওয়া অফিস বরিশাল কার্যালয় সূত্রে জানানো হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট মৌসুমী নিম্ন চাপটি ভারতের উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করে উড়িষ্যা ও তার আশপাশের এলাকায় লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। সেই সাথে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় মৌসুমী বায়ু প্রবল থাকায় বরিশাল, ভোলা ও পটুয়াখালী সহ বেশে কয়েকটি জেলায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া, বৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।