উজিরপুরে গুঠিয়ায় চলছে জুয়া

উজিরপুর প্রতিবেদক॥ উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নে প্রতিনিয়ত চলছে জুয়া খেলার আসর। দীর্ঘদিন ধরে কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে এ ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে, বাড়ির আশ পাশের বাগানে জোর পূর্বক দিন রাত চলে মরন নেশার দেউলিয়া হওয়া জুয়া খেলা। এতে করে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে স্কুল-কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থী ও সাধারন খেটে খাওয়া মানুষ। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, এ ইউনিয়নের দোসতিনা গ্রামের মজিবর হাওলাদারের ছেলে লালন (লালু) মিন্টু দীর্ঘদিন উজিরপুর – ঝালকাঠীর সীমান্তবর্তী কাড়াল বাড়ির উত্তর পাশের একটি বাগানে জুয়ার বোড বসিয়ে প্রতিনিয়ত হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। আর দেউলিয়া হচ্ছে এ বোডে খেলতে আসা উজিরপুর, বানারিপাড়া, ঝালকাঠির খেলোয়াররা। এখানে প্রতিদিন অর্ধশত খেলোয়ারের সমাগমে চলে লক্ষ লক্ষ টাকার খেলা। এ গ্রামটি উজিরপুর উপজেলার এক প্রান্তে ঝালকাঠির সীমান্তবর্তী হওয়ায় জুয়রিরা নির্বিঘেœ এখানে জুয়া খেলা বসিয়ে থাকে। এ কারনে উজিরপুর থানা পুলিশের নজরে পরছে না। ওই এলাকার সচেতন মহলের একাধিক ব্যক্তি সাংবাদিক দের জানিয়েছেন লালু মানছে না কেনো বাধা। এ খেলার প্রতিবাদ করলে আমাদের গালি গালাজ ও নানা ভাবে হুমকি ধামকি দেয়। জানা গেছে এ জুয়া খেলার আসরে পোছ (কাইট) নামক একটি ফকির হওয়ার খেলা খেলে থাকে।বোড পরিচালনাকারি লালু খেলতে বসার পূর্বে প্রতি খেলোয়ারের কাছথেকে প্রসাশন ম্যানেজের কথা বলে ২০০ খেলার মাঝে ৩ খেলেয়ারের হাত মিছ দিলে আরও ১০০ টাকা করে নেয়। এভবেই  প্রতারনার মাধ্যমে সকাল সন্ধ্যা, রাত ভর হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। ইহা যেন দেখার কেউ নেই। ইহা প্রতিকারে প্রশাসনের আশু সুদৃষ্টি কামনা করে ওই এলাকার শান্তি প্রিয় মানুষ।