উজিরপুরের হারতায় জেলে পল্লীতে তান্ডব চালানোর অভিযোগে মামলায় গ্রেপ্তার-১

উজিরপুর প্রতিবেদক॥ নৌ-পুলিশ ও ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয়ে উজিরপুরের হারতা ইউনিয়নের নাথারকান্দি গ্রামের জেলে পাড়ায় হামলা, লুটপাট, ও তান্ডব চালানো ৬ সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে গতকাল বুধবার দুপুরে উজিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিত পরিবারের গীতা রানী বাড়ৈ  বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় পুলিশ কেশবকাঠী গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে জাহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেছে। সোমবার গভীররাতে হারতা ইউনিয়নের নাথারকান্দি এলাকায় সন্ধ্যা নদীতে ও জেলে পাড়ায় আওয়ামী যুবলীগ সমর্থিত ৬ সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে জেলেদের নৌকায় থাকা ইলিশ মাছ লুট করে এবং জেলেদের বাড়িতে ঢুকে ঘরে ঘরে পুলিশ ও ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয়ে তল্লাশি চালিয়ে জেলেদেরকে নির্যাতন ও লুটপাট করে। এ ঘটনায় গ্রামবাসীরা সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধ করে ডাকাত ডাকাত চিৎকার করে তাদেরকে আটক করে হারতা পুলিশ ক্যাম্পে সোর্পদ করে। পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে জাহিদুল ইসলাম, কুদ্দুস শিকদার , লিমন কাজী , যুবলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম জামাল, সুমন হাওলাদার ও সুবোদ মাঝি কে যুবলীগের কর্মী দাবী করে আওয়ামীলীগ নেতারা হারতা পুলিশ ক্যাম্প থেকে তাদেরকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকরা বরিশালের পুলিশ সুপার এ কে এম এহসানউল্লাহকে বিষয়টি অবগত করালে তিনি সন্ধ্যায় উজিরপুর থানায় এসে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার কৃত আসামীদের কেন ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এজন্য শোকজ করেন এবং দ্রুত মামলা গ্রহন করে আসামীদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন এবং গতকাল বুধবার বিভিন্ন সংবাদপত্রে গুরুত্বের সাথে সংবাদটি প্রকাশিত হলে থানা পুলিশের টনক নড়ে। সেই সাথে উজিরপুর উপজেলার হারতা এলাকার শান্তিপ্রিয় জনগন বরিশালের পুলিশ সুপার এ কে এম এহসানউল্লাহ’র দ্রুত সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া ও সাংবাদিকদের সঠিক সংবাদ পরিবেশন করায় তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন।