ইয়াবা সহ ছাত্রলীগ নেতা দোলন ও সহযোগি আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ এবার ইয়াবা সহ র‌্যাবের হাতে আটক হলো মহানগর ছাত্রলীগের তথাকথিত নেতা সাকিব আলম দোলন ও তার সহযোগি সুমন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর রূপাতলী এলাকার আব্দুল্লাহ হোটেল এর সামনে থাকে তাদের আটক করা হয়। এসময় দোলন ও তার সহযোগির কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট।
র‌্যাব-৮ সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতাকাল রাতে র‌্যাবের একটি টিম অভিযান চালিয়ে সাকিব আলম দোলন ও সুমনকে আটক করা হয়। পরে উপস্থিত স্বাক্ষিদের সামনে তাদের দেহ তল্লাশী করে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। দোলন ও সুমন দু’জনেই দীর্ঘ দিন ধরে ইয়াবা বেচা-বিক্রির সাথে জড়িত বলে জানানো হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, এক সময়ের আলোচিত ও তথা কথিত ছাত্রলীগ নেতা সাকিব আলম দোলান নগরীর সরকারি দপ্তর দাপিয়ে বেড়াতো। দপ্তর গুলোর ঠিকাদারী কাজ নিয়ন্ত্রনই ছিলো তার পেশা। এর মাধ্যমে লাখ লাখ টাকার মালিক হন। তবে সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরন’র মৃত্যুর পর পরই তার দাপট কমে আসতে শুরু করে। অর্থনৈতিক মন্দা কাটাতে ঠিকাদারী ব্যবসার আড়ালে মাদকের ব্যবসায় যুক্ত হয়। ইতিপূর্বে তার মাদকের আস্তানা ছিলো দপদপিয়ায় সাবেক ফেরিঘাট এলাকায়। এছাড়া শেবাচিম হাসপাতালের ইন্টার্নি ডক্টর্স হোস্টেলও ছিলো তার মাদক ব্যবসার নিরাপদ আস্তানা। সম্প্রতি সেখানে অভিযান চালিয়ে দোলনের এক সহযোগি আটক করে পুলিশ। তার মাধ্যমেই পুলিশ জানতে পারে ইন্টার্নি ডক্টর্স হোস্টেলের ওই রুমটিতে দোলন অবৈধ ভাবে বসবাস করে আসছিলো। তবে ধরা ছোয়ার বাইরে ছিলো সাকিব আলম দোলন। কিন্তু র‌্যাবের চোখকে ফাঁকি দিতে পারলো না সে। শেষ পর্যন্ত ইয়াবা সহ আটক হয়েছে এক সময়ের চিহ্নিত টেন্ডারবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী সাকিব আলম দোলন।