ইসলামী ব্যাংকের বগুড়া রোড শাখায় গ্রাহক হয়রানির অভিযোগ

এম হোসেন॥ ভোগান্তির আরেক নাম হয়ে দাড়িয়েছে বরিশাল বগুড়া রোডস্থ ইসলামী ব্যাংক। প্রতিনিয়তই ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন এই ব্রাঞ্চের গ্রাহকরা। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ যেন দায় সাড়া দায়িত্ব পালন করছেন। এতে গ্রাহকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ইসলামী ব্যাংক থেকে ধীরে ধীরে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে গ্রাহকরা। প্রত্যক্ষ ভাবে জানা গেছে, গতকাল বরিশাল বগুড়া রোডস্থ ইসলামী ব্যাংকে ইন্টারনেট ব্যবস্থা ছিল না। অফিস খোলার শুরুতে থাকলেও দুপুর ১২টা থেকে একেবারেই উধাও হয়ে গেছে এই নেট সার্ভিস। এতে ব্যাংকে সেবা নিতে আসা কয়েকশ গ্রাহক চরম বিপাকে পরে। ২-৩ ঘন্টা দাড়িয়ে থেকেও ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে পারেনি অনেকে। শত অনুনয় বিনয় করেও সুরাহা হয়নি ব্যাংক কর্তাদের কাছে। শুধু গতকাল নয় প্রায় প্রতিনিয়তই নেটওয়ার্ক জনিত সমস্যা দেখা দিয়েছে এই ব্যাংকে। এতে ব্যাংকে ভোগান্তির হার মাত্রাতিরিক্ত হারে বাড়ছে। এছাড়া ব্যাংকের বুথে নানা ত্রুটি বিচ্যুতি ধরা পরছে। ছিরা টাকা এটিএম বুথে দেয়ার অভিযোগ রয়েছে ইসলামী ব্যাংকের। পরে ছিড়া টাকা নিয়ে ব্রাঞ্চে গেলেও ভালো টাকা দেওয়া হচ্ছে না গ্রাহকদের। এতে বিভিন্ন ভাবে হয়রানীর শিকার হচ্ছে গ্রাহকরা। বগুড়া রোডস্থ ইসলামী ব্যাংকের গ্রাহক মোঃ আল আমীন গত কয়েকদিন আগে ইসলামী ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে ১০ হাজার টাকা ইত্তোলন করে। এতে ১হাজার টাকার একটি ছিড়া নোট ধরা পরে। ব্যাংকে গিয়ে এ ব্যাপারে বললে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাকে টাকা না দিয়ে তারা বলে বুথে ছিড়া টাকা দেওয়া হয় না। এভাবে একাধিক গ্রাহকরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। এ  ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। ইসলামী ব্যাংকের এক কর্মকর্তা বলেন নেটওয়ার্ক জনিত সমস্যার কারনে গোটা বাংলাদেশেই একই অবস্থা হয়েছে।
ইসলামী ব্যাং