আ’লীগ গনতন্ত্রকে হত্যা করে ক্ষমতায় থাকতে চায়-যুগ্ম মহাসচিব সরোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি এ্যাড. মজিবুর রহমান সরোয়ার বলেছেন, আ’লীগ গনতন্ত্রকে হত্যা করে ক্ষমতায় থাকতে চায়। গত ৫ জানুয়ারীর মত নির্বাচন করতে দেয়া হবে না। এদেশে সহায়ক সরকার ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। তাই আমরা নিরপেক্ষ ও ভোটের নির্বাচন চাই।
ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে গতকাল বুধবার মহানগর বিএনপির আয়োজিত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বেলা ১১টায় বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে তিনি আরো বলেন, আ’লীগ বিনা ভোটে নির্বাচন করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। নিজেদের ক্ষমতায় রাখতে বিরোধী দলকে নিশ্চিহৃ করতে একের পর এক মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। হামলা-মামলা ও গ্রেফতার করে বিএনপিকে দমিয়ে রাখা যাবে না। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে কোর্টের বারান্দায় রেখে এদেশে কোন নির্বাচন হবে না।
সরোয়ার বলেন, বর্তমান সরকার বিচার বিভাগকে নিজেদের আয়ত্বে নিয়ে দেশ পরিচালনা করছে। প্রধান বিচারপতিতে জোর করে বাধ্যতামুলক ভাবে ছুটি দিয়ে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। তাছাড়া আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশের মানুষের কথা চিন্তা না করে নিজেদের কথা চিন্তা করেছে। বর্তমানে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। পাশাপাশি দেশের উন্নয়ন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে।
তিনি আরো বলেন, বর্তমানে দেশে জাতীয় ঐক্য তৈরি করা উচিত। কিন্তু ক্ষমতাসীন সরকার সেটা করছে না। গনতন্ত্রকে হত্যা করে জনগনকে বাকরুদ্ধ করে দিয়েছে। এই সরকার গনতান্ত্রিক সরকার নয়। তাই জনগনকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসতে হবে।
১৫ আগষ্ট ও ২১ আগষ্ট এর ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে সরোয়ার বলেন, এই ঘটনার আসল রহস্য উদঘাটন করা উচিত। কিন্তু এর সাথে যারা জড়িতদের সরকার গ্রেফতার করতে না পেরে বিএনপিকে দোষারোপ করছে। তাছাড়া সরকার নিজেই জানে এর পেছনে কারা আছে। তা জানা সত্বেও তারা এই ঘটনাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করছে।
এ সময় তিনি বলেন, জনগনের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়া, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, দুনীর্তিমুক্ত সমাজ ব্যবস্থা ও শিক্ষা ক্ষেত্রে নকল মুক্ত করাই বিএনপির মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। তাই এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বিএনপির প্রত্যেক নেতাকর্মীকে আরো জাগ্রত হতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে এই অবৈধ সরকারকে হটিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এসময় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।
বিক্ষোভ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, বরিশাল মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) জিয়া উদ্দিন সিকদার, বিএনপির সিনিয়র নেতা এ্যাড. আলী হায়দার বাবুল, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুল হক তারিন, ছাত্রদলের বরিশাল মহানগরের আহবায়ক খন্দকার আবুল হাসান লিমন, যুবদলের বরিশাল মহানগরের সাধারন সম্পাদক মাসুদ হাসান মামুন, জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব, শাহেদ আকন সম্রাট, বাবুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক অহিদুল ইসলাম প্রিন্স , ফাতেমাতুজ্জ জোহরা মিতু প্রমুখ।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০ টায় অশ্বিনী কুমার হলের সামনে একই ইস্যু নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বরিশাল উত্তর ও দক্ষিন জেলা বিএনপি। দক্ষিন জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁনের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ, দক্ষিন জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম শাহীন, যুবদলের জেলা সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব, মুলাদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডঃ তরিকুল ইসলাম দিপু, কোতয়ালী বিএনপির সভাপতি এনায়েত হোসেন বাচ্চু, সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন লাবু, সহ-সভ্পাতি রফিকুল ইসলাম আকন, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন দিপেন, বাবুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইসরাত হোসেন কচি, ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম সুজনপ্রমুখ। বক্তারা বলেন, আমরা শান্তিপূর্ন নির্বাচন চাই। তবে আওয়ামীলীগের অধিনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠ হবেনা। আমরা নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে নির্বাচন চাই। এর পরে জেলা যুবদলের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হলে পুলিশী বাধায় তা পন্ড হয়ে যায়।